মেইন ম্যেনু

চিকিৎসায় নোবেল পেলেন জাপানের ইয়োশিনোরি

এ বছর চিকিৎসায় নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন জাপানের ইয়োশিনোরি ওহসুমি। নোবেল কমিটি সোমবার তার নাম ঘোষণা করে।

অটোফাজি আবিষ্কারের স্বীকৃতি হিসেবে ইয়োশিনোরিকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। অটোফাজি হলো শরীরের কোষগত উপাদানের ভাঙন ও তা পুনরায় ব্যবহারযোগ্য করার প্রক্রিয়া। ক্যান্সার থেকে শুরু করে পারকিনসন্সের মতো রোগের ক্ষেত্রে শরীরে পরিবর্তনের ধরন বুঝতে তার এই গবেষণা কাজে লাগছে।

ইয়োশিনোরি আবিস্কার করেন, আক্রান্তের পর শরীরের জিনগুলো মূলত নিজেরাই নিজেদের খেয়ে ফেলে। রোগের জন্য সেই জিনগুলোই মূলত দায়ী। তার এই আবিস্কারকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে উল্লেখ করে নোবেল কমিটি।

গত বছর ম্যালেরিয়া ও গ্রীষ্মমণ্ডলীয় রোগের প্রতিষেধক আবিস্কারের জন্য যৌথভাবে ৩ বিজ্ঞানীকে চিকিৎসায় নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়।

১৯০৫ সালে নোবেল পুরস্কার প্রদানের রীতি চালু হওয়ার পর চিকিৎসাশাস্ত্রে বিশেষ অবদানের জন্য এ পর্যন্ত ১০৭ বার নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এবার চিকিৎসাশাস্ত্রে এককভাবে নির্বাচিত হওয়ায় ৮০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার পাবেন ইয়োশিনোরি। আগামী ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই