মেইন ম্যেনু

চীনে ৪৫৮ আরোহী নিয়ে জাহাজডুবি, নিখোঁজ বহু

চীনের একটি জাহাজ ৪৫৮ আরোহী নিয়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশে অবস্থিত ইয়াংতজে নদীতে সোমবার রাতে ঝড়ের কবলে পড়ে উল্টে গিয়ে ডুবে গেছে। এটি একটি প্রমোদতরি।

এখন পর্যন্ত পাঁচজন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। তবে জাহাজটির প্রায় সব যাত্রীই এখনো নিখোঁজ রয়েছে।

চীনের বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, ডুবে যাওয়া জাহাজটি শনাক্ত করতে পেরেছে উদ্ধারকর্মীরা এবং তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

এ পর্যন্ত ১২ আরোহীকে উদ্ধার করা হয়েছে। ডুবে যাওয়ার পর সাঁতরে ও জেলেদের নৌকার সাহায্যে এসব আরোহীকে উদ্ধার করা হয়েছে। জাহাজটির অধিকাংশ যাত্রী পর্যটক।

দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজের উদ্ধার তৎপরতা পর্যবেক্ষণ করার জন্য সেখানে রওনা দিয়েছেন চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেছিয়াং।

ডংফাংঝিজিং (ইস্টার্ন স্টার) নামের এই জাহাজে ৪০৫ জন চীনা পর্যটক, পাঁচজন ট্রাভেল এজেন্সির কর্মী এবং ৪৭ জন ক্রু ছিল ও ক্যাপ্টেন ছিলেন।

চীনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর নানজিং থেকে ১ হাজার ৫০০ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত দক্ষিণ-পশ্চিমের চংকিং শহরের দিকে যাচ্ছিল এই প্রমোদতরিটি। যাত্রাপথে জিয়ানলি কাউন্টিতে ইয়াংতজে নদীর ডামাঝো সেকশনে ঝড়ের কবলে পড়ে এটি উল্টে যায়।

যেখানে জাহাজটি ডুবে গেছে, সেখানে নদীতে পানির গভীরতা ১৫ মিটার (৫০ ফুট)।

উদ্ধার হওয়া ১২ জনের মধ্যে রয়েছেন জাহাজের ক্যাপ্টেন এবং চিফ ইঞ্জিনিয়ার। তারা জানিয়েছেন, হঠাৎ ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে তাদের জাহাজ এবং সঙ্গে সঙ্গে সেটি উল্টে গিয়ে ডুবে যায়।

ঝোড়ো বাতাস এবং ভারী বৃষ্টিতে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী লি নির্দেশ দিয়েছেন, রাজ্য পরিষদের একটি উদ্ধারকারী দলকে উদ্ধারাভিযানে নেতৃত্ব দিতে।

চীনের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম সিসিটিভি জানিয়েছে, ডুবে যাওয়া জাহাজটির মালিক চংকিং ইস্টার্ন শিপিং করপোরেশন। ইয়াংতজে নদীসহ আরো কয়েকটি নদীতে তারা প্রমোদ ভ্রমণের আয়োজন করে থাকে।

ইয়াংতজে নদীর অপরূপ সৌন্দর্যের জন্য প্রতিবছর এই নদীতে হাজার হাজার পর্যটক ভ্রমণে আসে।

পিপিলস ডেইলি নামে একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ডুবে যাওয়া জাহাজের যাত্রীদের বয়স ৫০ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে। সাংহাইয়ের একটি কোম্পানি তাদের জন্য প্রমোদ ভ্রমণের আয়োজন করে।

এ বছরের জানুয়ারি মাসে চীনের জিয়াংসু প্রদেশে একটি নৌকাডুবির ঘটনায় নিহত হয় ২২ জন।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন।






মন্তব্য চালু নেই