মেইন ম্যেনু

চীন পাশে দাঁড়ালেও মুখে কুলুপ যুক্তরাষ্ট্রের

সম্প্রতি গোয়াতে ব্রিকস সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, পাকিস্তান জঙ্গিদের আতুরঘর। তার এমন মন্তব্যের পর এ বিষয়ে কোনো ধরনের মন্তব্য করেনি যুক্তরাষ্ট্র। খবর অল ইন্ডিয়ার।

পাকিস্তানকে একঘরে করতে ব্রিকসের মূল আলোচ্য করে তুলতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত ব্রিকসের ঘোষণাপত্রে জায়গা হয়নি ভারতের দীর্ঘদিনের দাবি ‘সীমান্তপারের সন্ত্রাস’।

পাকিস্তানকে কোণঠাসা করতে সীমান্তপারের সন্ত্রাসকে গোয়ার ঘোষণাপত্রে আনার সব রকম চেষ্টা চালিয়েছিল নরেন্দ্র মোদি সরকার। কিন্তু চীন এবং রাশিয়া এতে রাজি না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ভেস্তে গেছে মোদির সব প্রচেষ্টা।

এমনকি চীন তাদের দীর্ঘদিনের মিত্র পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় থাকার আভাসই দিয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে একেবারেই নিশ্চুপ রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তারা ইতিবাচক বা নেতিবাচক কোনো ধরনের কোনো মন্তব্যই করেনি।

এদিকে, মোদির এমন মন্তব্যের ওপর ভিত্তি করে সোমবার হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জোস আরনেস্ট বলেন, ‘আমি স্বীকার করছি যে, এ ধরনের মন্তব্য নিয়ে আমরা কোনো বক্তব্য তুলে ধরিনি। সাধারণভাবে আমি এটুকু বলতে চাই যে, আমাদের তরফ থেকে ভারত এবং পাকিস্তানের এই চলমান অস্থিরতার বিষয়ে আমরা দু’দেশকেই শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধানে উৎসাহ দিয়েছি।’

গতকাল চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং মোদির ওই মন্তব্যের বিষয়ে বলেন, সন্ত্রাসের সঙ্গে নির্দিষ্ট কোনো দেশ, জাতি বা সম্প্রদায়ের জড়িত থাকার বিষয়ে আমরাও বিরোধিতা করেছি।






মন্তব্য চালু নেই