মেইন ম্যেনু

চুম্বন হতে পারে ক্যান্সারের কারণ!

চুম্বনের সময়ে ছড়াতে পারে HPV নামের একটি ভাইরাস যা হতে পারে মুখের ক্যান্সারের কারণ। এতে কি আমাদের সাবধান থাকা জরুরী?

হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস HPV একটা সাধারণ ইনফেকশন যা ত্বক থেকে স্পর্শের মাধ্যমে ছড়ায় তবে তা সাধারণত ক্ষতিকর নয়। এটি নারী-পুরুষ উভয়ের মুখ এবং যৌনাঙ্গে টিকে থাকতে পারে এবং সার্ভাইক্যাল ক্যান্সারের এটি একটি বড় কারণ। কিন্তু তারমানে কি এই যে চুম্বন ধূমপানের চাইতেও ভয়াবহ হয়ে দাঁড়াতে পারে ক্যান্সারের ক্ষেত্রে?

জীবনের কোনো না কোনো সময়ে HPV এর শিকার হন ১০ জনের মাঝে ৮ জন মানুষই, কিন্তু এতে আঁতকে ওঠার কিছু নেই। কয়েকশো ধরণের HPV আছে কিন্তু তার মাত্র ১৫টি ক্যান্সারের জন্য দায়ী বলে মনে ক্রয়া হয়। এগুলো হলো “হাই রিস্ক” HPV। বেশীরভাগ সময়ে আমাদের শরীর এদের সাথে যুদ্ধ করে জিতে যায়। কিন্তু কখনো কখনো হাই-রিস্ক HPV ইনফেকশনের শিকার হওয়া মানুষটির শরীরে ক্যান্সার দেখা দেয়।

HPV সরাসরি ক্যান্সার তৈরি করে না। এই ইনফেকশন শুরু হয় ত্বকের গভীর থেকে। ইনফেকশনের ফলে ত্বকের কোষগুলো দ্রুত সংখ্যায় বাড়তে থাকে যাতে তাদের থেকে আরও ভাইরাস তৈরি হয়। হাই রিস্ক HPV এর ক্ষেত্রে ভাইরাস সেসব কোষের ডিএনএ পরিবর্তন করে ফেলে, ফলে অনিয়ন্ত্রিত কোষের সংখ্যাবৃদ্ধি হতে থাকে ও জন্ম নেয় ক্যান্সার।

এখন দেখা যাক মুখের ক্যান্সারের ব্যাপারটা। আগে ধারণা করা হতো মুখে ক্যান্সার হবার মূল কারণ হলো মদ্যপান এবং ধূমপান। কিন্তু সম্প্রতি কিছু প্রমাণ পাওয়া গেছে যা থেকে মনে হয় HPV এর মূল কারণ। দেখা যায়, ২৫ শতাংশ মুখের ক্যান্সার এবং ৩৫ শতাংশ গলার ক্যান্সারের পেছনে কারণ হলো HPV। ক্যান্সার রিসার্চ ইউকে এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ৪০ শতাংশেরও বেশি ওরাল ক্যান্সারের পেছনে কারণ হলো HPV ইনফেকশন।

এর সাথে চুম্বনের সম্পর্ক কি? মুখে যেহেতু এই ভাইরাস অনেকটা সময় টিকে থাকতে পারে সুতরাং এমন HPV আছে এমন মানুষ থেকে আপনার মাঝেও ছড়াতে পারে এই ভাইরাস এবং তা যদি হাই রিস্ক ধরণের হয় তবে তা তৈরি করতে পারে ক্যান্সার। তবে এই ঝুঁকি অনেকটাই কম এবং এ ব্যাপারে নতুন নতুন তথ্য জানা যাচ্ছে বলেই চিন্তিত হতে হবে এমনটা নয়।

মূল: Does Kissing Really Create A Greater Risk Of Developing Mouth Cancer Than Smoking? by Josh L Davis, IFLScience






মন্তব্য চালু নেই