মেইন ম্যেনু

চুরির দায়ে বানরের শাস্তি!

বানরের বাঁদরামির কথা কার অজানা! তা সে খাঁচার ভেতরই হোক, আর মুক্ত পরিবেশে হোক। সেটা দেখে আনন্দও পায় মানুষ। মুক্ত পরিবেশের বানর মানুষের বাড়ি থেকে এটা-ওটা চুরিও করে। তবে সেই বানরকে যেন ধরা দায়! চুরি করেই বানর একেবারেই পগাড় পার। এবার চুরির দায়েই ধরা পড়ল একটি বানর। আর শাস্তিও হয়েছে তার।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, মুম্বাইয়ের সিওন এলাকার একটি আবাসিক কলোনিতে ওই বানরটি ছয় মাস ধরে খাবার চুরি করে আসছিল। শুধু তা-ই নয়, একটি বালিশের দোকানে ঢুকে বালিশ ছিঁড়ে তছনছ করত বানরটি। সেটির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিল এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে স্থানীয় লোকজনের পক্ষ থেকে মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলরের কাছে অভিযোগও জানানো হয়। কিন্তু প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় এলাকাবাসী শরণাপন্ন হন পেশাদার বানর-ধরা এক ব্যক্তির। সেই ব্যক্তিই শুক্রবার সকালে খাবার দিয়ে ফাঁদ পেতে বানরটিকে আটক করেন। এরপর বানরটির দুই হাত পেছনে নিয়ে দড়ি দিয়ে শক্ত করে বেঁধে রাখা হয়। এ ছাড়া বানরটির দুই পা ও গলা একসঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। পরে অবশ্য বানরটিকে খাঁচায় ঢোকানোর পর তার বাঁধন খুলে দিয়ে ফল খেতে দেওয়া হয়।

মহারাষ্ট্র বন বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, বানরটি সুস্থ আছে। সেটিকে মুম্বাইয়ের উত্তরাঞ্চলের একটি জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই