মেইন ম্যেনু

চুলে কলপ কিংবা মেহেদি দেয়া যাবে কী?

আমাদের সমাজে অনেকেই নিজের চুলে মেহেদি দিয়ে থাকেন। আবার অনেকেই আছেন যারা নিজেদের চুলে কলপ ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু আপনি জানেন কি, চুলের রং পরিবর্তন করা বিষয়ে ইসলামে কি ব্যাখ্যা দেয়া আছে?

এক হাদিসে এসেছে, মক্কা বিজয়ের দিন হজরত রাসূলে কারিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হজরত আবু বকর সিদ্দীকের (রা.) পিতা আবু কুহাফার (রা.) চুল এবং দাড়ি পাকা দেখে বললেন, এটাকে কোনো কিছু দ্বারা পরিবর্তন করো। তবে কালো করা থেকে বিরত থাক। -সহিহ মুসলিম, হাদিস: ৫৪৬৬

আরেক হাদিসে আছে, হরজত রাসূলে কারিম (সা.) বলেন, শেষ জামানায় কিছু লোক কবুতরের ঝুঁটির মতো কালো খেজাব ব্যবহার করবে তারা কেয়ামতের দিন জান্নাতের ঘ্রাণও পাবে না। -সুনানে আবু দাউদ, হাদিস: ৪২০৯

অবশ্য কোনো যুবকের অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে যদি চুল-দাড়ি পাকার বয়সের আগেই সাদা হয়ে যায় তবে সে কালো খেজাব ব্যবহার করতে পারবে। আহমাদ আলি সাহারানপুরি বলেন, হাদিসে কালো খেজাব ব্যবহার করতে নিষেধ করা হয়েছে। এর মূল কারণ অন্যদের সামনে বয়স গোপন করা এবং অন্যকে ধোঁকা দেওয়া। -হাশিয়া সহিহ বোখারি: ১/৫৩০
উপরোক্ত হাদিসগুলোর ব্যাখ্যা থেকে আমরা সহজেই অনুধাবন করতে পারি চুলে মেহেদি দেয়া যাবে, কারণ মেহেদি দিলে চুলের রং কালো হয় না। বরং কালো কলপ দেয়া যাবে না।






মন্তব্য চালু নেই