মেইন ম্যেনু

চেক প্রতারণার মামলায় কক্সবাজারের উখিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

প্রতারণার মামলার সাজা প্রাপ্ত আসামী ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সালাম মধুকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।
সোমবার রাতে থানার এস আই শাহজাহান কামালের নেতৃত্বে একদল পুলিশ কোটবাজার ষ্টেশন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি জালিয়া পালং ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জহিরুল ইসলাম খাঁন গ্রেপ্তারের ঘটনা সত্যতা স্বীকার করেন।

জানা যায়, জালিয়া পালং ইউনিয়নের পাইন্যাশিয়া গ্রামের হাজী নুরুল ইসলাম প্রকাশ গাছ কালুর ছেলে আব্দুস সালাম মধু ২০১৪ সালে ইট ভাটার ব্যবসার কথা বলে টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপ গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র আবুল ফয়েজের কাছ থেকে ৩১লক্ষ টাকা ধার নেয়। উক্ত টাকা ফেরত চাইলে আব্দুস সালাম মধু ইসলামী ব্যাংক কোটবাজার শাখার ৩টি চেক প্রদান করেন। পরবর্তীতে ওই চেক নিয়ে টাকা উত্তোলন করতে গেলে তার একাউন্টে পর্যাপ্ত টাকা জমা না থাকায় চেক গুলো ডিজনার করে দেয় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে পাওনাদার আবুল ফয়েজ বাদী হয়ে প্রতারণার অভিযোগে আব্দু সালাম মধুর বিরুদ্ধে কক্সবাজার আদালতে মামলা দায়ের করেন। যার নং- ৩১১/২০১৪। বিজ্ঞ আদালত উক্ত প্রতারণা মামলা প্রমাণিত হওয়ায় আসামী আব্দুস সালাম মধুকে ১ বছরের কারাদন্ডসহ ১৪ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায়ের রায় দেওয়া হয়।

প্রতারণার শিকার আবুল ফয়েজ জানান, আব্দু সালাম মধু নিজেকে বড় মাপের আওয়ামীলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে ও হলদিয়া পালংয়ের পাগলির বিল সড়কে তার মালিকানাধীন ইট ভাটা আছে মর্মে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে তার কাছ থেকে তিন দফায় ৩১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। উক্ত টাকা চাইতে গিয়ে তিনি অনেক অপমান ও অপদস্ত হতে হয়েছে।

উখিয়া থানার এস আই শাহ জাহান কামাল বলেন, আব্দু সালাম মধুর বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলায় ১ বছরের সাজা হয়েছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে আরো ৩টি মামলার ওয়ারেন্ট আছে। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে পলাতক ছিল।






মন্তব্য চালু নেই