মেইন ম্যেনু

চোখের দৃষ্টি ফিরে পেতে জিন থেরাপি

অপ্টোজেনেটিক্স বা জিন থেরাপির সাথে আলোর চিকিৎসা শেষ পর্যন্ত সফল হলো। যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে চিকিৎসকরা প্রথমবারের মতো অন্ধ একজন মহিলার ওপর জিনিথেরাপিতে চোখের চিকিৎসা সম্পন্ন করেন। এই অপারেশন শেষে মহিলাটি দৃষ্টি শক্তি ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা দেখা গিয়েছে। এই প্রক্রিয়াতে মহিলাটির চোখে ভাইরাস পরিবাহী ডিএনএ প্রবেশ করাতে ব্যবহার করা হয়েছেন। এজন্য তারা সংবেদনশীল আলোর শেওলা ব্যবহার করেছেন। যা চোখের পেশির অনুকরণে কাজ করে। এই প্রক্রিয়া চোখের রেটিানায় বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়। এতে দৃষ্টি শক্তি প্রভাবিত হয়। ঐ মহিলা আংশিক দৃষ্টি শক্তি ফিরে পেয়েছেন।

চোখের রোগীকে এখনও চিকিৎসার সবটুকু পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়নি। তবে রোগীর চোখের প্রতিক্রিয়া থেকেই বোঝা যাবে কখন এতে আরও চিকিৎসার প্রয়োজন হবে। যদিও এই চিকিৎসার পুরোপুরি সফলতা এখনও নিশ্চিত করা হয়নি। চিকিৎসকরা রোগীকে নিয়মিত পর্যবেক্ষণে রাখছেন। আগামী বছর পর্যন্ত চলবে এই পর্যবেক্ষণ। পর্যবেক্ষণ চলাকালে মহিলার আরও তিনটি ইনজেকশন চিকিৎসার প্রয়োজন হতে পারে।

চোখের সেলগুলো এখনও পরিপূর্ণভাবে রেটিনার সাথে সেট হতে পারে নি। কারণ আলো সংবেদনশীলতা এখানে গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে একটি কার্যকর ভিডিও গ্লাস স্থির চিত্রের উজ্জ্বলতা দিয়ে তাকে ভেতরে এবং বাহিরে আলোর সাথে সামজ্ঞস্য করতে সহযোগিতা করবে।

ক্রমাগতভাবে, অন্ধত্বের অভিশাপ থেকে পুরোপুরি মুক্তি পেতে বিজ্ঞানীদের সফলতা প্রতিদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই