মেইন ম্যেনু

ছাগলের পেটে মানবাকৃতির ছানা !

ঝিনাইদহের শৈলকৈুপা উপজেলার কীর্ত্তিনগর গ্রামের গড়াই আশ্রয়ন প্রকল্পের একটি বাড়িতে মানবাকৃতির একটি ছাগল ছানার জন্ম হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই গ্রামের নিখিল সরকারের বাড়িতে দেখতে অনেকটা মানবাকৃতির ছাগল ছানাটি ভুমিষ্ট হয়।

এদিকে অদ্ভুত আকৃতির ছাগল ছানা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষক নিখিল। ছাগল ছানাটি ভুমিষ্ট হওয়ার পর পর দুরদুরান্তের শত শত মানুষ তার বাড়িতে ভীড় জমাচ্ছে। ছাগল ছানাটি ভুমিষ্ট হওয়ার পর আধা ঘন্টা জীবিত ছিল।

নিখিল সরকার জানান, এর আগে তার ছাগিটি দুইবার স্বাভাবিক বাচ্চা দিয়েছে। এবার দেখতে অদ্ভত চেহারার বাচ্চা প্রসব করলো। তিনি আরো জানান, ছাগলের বাচ্চাটির মুখ, দাঁত ও জিহবা দেখতে কিছুটা মানুষের মতো।

গায়ে কোন পশম নেই। নিচের অংশ ছাগলের মতো হলেও উপরের অংশ দেখতে অবিকল মানুষের মতোই বলে নিখিল সরকার জানান। ছাগল ছানা দেখতে যাওয়া শৈলকুপার সাংবাদিক শিহাব মল্লিক জানান, বাচ্চাটি ভুমিষ্ট হওয়ার কিছুক্ষন পর মারা যায়। তিনি আরো উল্লেখ করেন, গড়াই আশ্রয়ন প্রকল্পে নিখিল সরকারের বাড়িটি এখন লোকে লোকারন্য।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সরকারী ভেটেরিনারি কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ডাঃ আমিনুল ইসলাম জানান,অনেক সময় টেরাটোলজিক্যাল কন্ডিশন এবং পয়জনিংয়ের কারণে এমন বাচ্চা তৈরী হতে পারে। তিনি আরো জানান, ভ্রন তৈরীর সময় টপটিলজিক্যাল ইফেক্ট থাকলেও এমনটি হয়। তবে এটি একটি আন কমন কেস। লাখে একটি হয়।






মন্তব্য চালু নেই