মেইন ম্যেনু

ছাত্রলীগকে ভোগের নয়, ত্যাগের জীবন গড়ার উপদেশ

ভোগের মধ্যে সুখ নয়, ত্যাগের মাধ্যমেই নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। তাহলেই নিজেকে একজন সত্যিকার দেশপ্রেমী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে। যারা ভোগের গড্ডালিকায় নিজেকে বিলিয়ে দেয় তারা নিজেরা হয়তো ভোগ বিলাসের জীবন কাটাতে পারে। কিন্তু দেশকে কিছু দিতে পারে না। এর প্রমাণ তোমরা বাংলাদেশেই দেখেছ।

সোমবার বিকালে গণভবনে নতুন নির্বাচিত ছাত্রলীগের নতুন কমিটির সাথে মতবিনিময় কালে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

তিনি এসময় আরো বলেন, ‘১৯৪৮ সাল থেকে ছাত্রলীগ বাংলাদেশের জনগণকে মুক্তির পথ দেখিয়ে আসছে। আওয়ামী লীগ আদর্শ নিয়ে চলে। কারণ আদর্শ ছাড়া, নীতি ছাড়া কখনো কোনা নেতৃত্ব গড়ে উঠতে পারে না। তাই নব নির্বাচিত ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে লোভ লালসার ঊর্ধ্বে উঠে ত্যাগের মনোভাব নিয়ে জনগণের সেবা করতে হবে।’

নতুন নির্বাচিত ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইনকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি তাদের বলতে চাই, তোমরা যে দায়িত্ব পেয়েছ এবং তোমাদের যারা নির্বাচিত করেছে তাদের প্রতি সম্মান রেখে তোমরা তোমাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করবে। কারণ আওয়ামী লীগ যখন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল তখন বঙ্গবন্ধু ছাত্রদের নিয়ে কাজ শুরু করেছেন। ছাত্রদের দেশকে নেতৃত্ব দেয়ার দায়িত্ব দিয়েছিলেন।’

শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মানুষের আর্থ-সামাজিত উন্নতি হয়, দেশের উন্নতি হয়। এটি একটিই কারণে হয়, কারণ আওয়ামী লীগ আদর্শ নিয়ে চলে। যে আদর্শ বঙ্গবন্ধু দিয়ে গেছেন। একটি লক্ষ্য রেখেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি। কাজেই ছাত্র লীগের নেতা-কর্মীকে এই অল্প বয়স থেকে সেভাবে নিজেকে তৈরি করতে হবে। কারণ আমি কী পেলাম সেটা বড় কথা না, আমি দেশকে কী দিলাম, সাধারণ মানুষকে কী দিতে পারলাম সেটিই বড় কথা। একজন রাজনীতিবিদের জীবনে এটাই হচ্ছে চরম সত্য। কাজেই তাদের সব সময় এটাই চিন্তা করতে হবে আমি দেশ এবং দেশের মানুষকে কতটুকু দিলাম।’






মন্তব্য চালু নেই