মেইন ম্যেনু

যশোরে শহীদ মিনারে বোমা হামলা

ছাত্রলীগের সেই ১০ নেতা-কর্মী জেলহাজতে

একুশের প্রথম প্রহরে যশোরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বোমা হামলা ও গোলাগুলির ঘটনায় এম এম বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি রাশেদ মিয়াজীসহ সংগঠনের ১০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

যশোর কোতয়ালী থানায় বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করে তাদেরকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

রাশেদ মিয়াজী ছাড়া গ্রেফতার হওয়া অন্যরা হলেন, একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রকি, ছাত্রলীগকর্মী আল মামুন শেখ, জাফর আহম্মেদ মন্ডল, মহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, সুমন সরদার, গাজী হাসান, তিতাস মিয়া, মিঠুন সরকার ও শাহিন মন্ডল।

এদিকে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল দাবি করেন, গ্রেফতারকৃতরা এম এম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। তারা কোনোভাবেই ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়।

তিনি আরো জানান, বহিরাগত সন্ত্রাসী ম্যানসেল ও নজুর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা বোমাবাজি করল আর পুলিশ রাতের আঁধারে বিশ্ববিদ্যালয়ের আসাদ হল থেকে ছাত্রলীগের নীরিহ নেতাকর্মীদের আটক করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিল। তিনি এই মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইলিয়াস হোসেন জানান, রাতে সহকারী পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল আসাদ হলে অভিযান চালিয়ে ১০টি বোমা ও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ তাদের আটক করে। তারা সবাই শহীদ মিনারে বোমা হামলার সঙ্গে জড়িত।

এদিকে এম এম বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান কোতয়ালী থানার ওসির সঙ্গে দেখা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করেন।






মন্তব্য চালু নেই