মেইন ম্যেনু

ছাত্রীকে শিক্ষকের কুপ্রস্তাব : ফের পরীক্ষা দিতে চাইলে রাত কাটাতে হবে

‘ফের পরীক্ষা দিতে চাও। তাহলে আমার সঙ্গে রাত কাটাতে হবে।’ এভাবেই নাগপুরের পলিটেকনিক কলেজে এক ছাত্রীকে প্রকাশ্যে কুপ্রস্তাব দেন এক শিক্ষক। কুপ্রস্তাব দেয়া ওই শিক্ষকের নাম অমিত গানভী।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, তার সঙ্গে রাত না কাটালে পরীক্ষা হলের টিকিট এবং গুরুত্বপূর্ণ নথি ফিরিয়ে না দেয়ার হুমকি দেন অমিত।

পরে বিষয়টি পুলিশকে জানালে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়।

ঘটনাটি গত ১৩ এপ্রিলের। নাগপুরের ধর্মপীঠ পলিটেকনিক কলেজে পরীক্ষার সিট পড়েছিল ওই ছাত্রীর। অমিত ছিলেন ওই হলের গার্ড।

জানা গেছে, পরীক্ষা চলাকালীন নকল করার সময় ধরা পড়েন ওই ছাত্রী। পরে ওই ছাত্রীর হল টিকিট, মোবাইল, আইডি কার্ড সবই বাজেয়াপ্ত করে নেন ওই শিক্ষক। ওই ছাত্রী প্রতিবাদ করতে গেলে অমিত তাকে কুপ্রস্তাব দেন। তার সঙ্গে রাত না কাটালে নথি ফিরিয়ে দেবেন না বলে হুমকিও দেন তিনি। এর পরেই সমস্ত ঘটনা কলেজের অধ্যক্ষকে জানান ওই ছাত্রী।

শিক্ষক অমিতওই ছাত্রী পুলিশকে বলেন, আমি বার বারই তাকে বোঝানোর চেষ্টা করছিলাম যে, উনি আমার বাবার বয়সী। কিন্তু উনি আমাকে বলেন, তিনি এখনও অবিবাহিত এবং ফ্রেশ।

এই ঘটনা জানাজানি হতেই উত্তেজনা ছড়ায়। শিবসেনা এবং যুব ক্রান্তির সদস্যরা কালি মাখিয়ে দেয় ওই শিক্ষকের মুখে।

আম্বাজারি থানার ইনস্পেক্টর অতুল সনবিস জানান, বৃহস্পতিবারই যৌন নিগ্রহের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত শিক্ষককে।






মন্তব্য চালু নেই