মেইন ম্যেনু

ছাত্রী হয়রানি : এসআই রতনের বিচার শুরু

রাজধানীতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী লাঞ্ছিতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তৎকালীন আদাবর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রতন কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। ফলে এসআই রতনের আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক এস এম রেজানুর রহমান আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। অভিযোগ গঠনের সময় আদালতে হাজির ছিলেন এসআই রতন। এসময় তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন।

গত ৩১ জানুয়ারি মোহাম্মদপুরের শিয়া মসজিদের কাছে এসআই রতন রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ ওঠে। শ্লীলতাহানির অভিযোগে ঘটনার পরদিন ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এর আদালতে মামলা করেন ওই শিক্ষার্থী। আদালত মামলা আমলে নিয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেন। ঘটনা তদন্তে ঢাকা মহানগর পুলিশ এবং তেজগাঁও বিভাগের পক্ষ থেকে দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। আর একই দিন এসআই রতন কুমারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

শ্লীলতাহানির অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এ বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদন ১০ ফেব্রুয়ারি দাখিল করেন ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম শেখ হাফিজুর রহমান। প্রতিবেদনে বলা হয়, এসআই রতনের বিরুদ্ধে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি। তদন্তে পাঁচজন সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই