মেইন ম্যেনু

ছাত্র সংসদের মানববন্ধনে অধিকাংশই শিশু!

শিশুদের দিয়ে মানববন্ধন করিয়েছে জাতীয় ছাত্র সমাজ।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবিতে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শতাধিক মানুষের মধ্যে ৮০ জনই শিশু। এদের কেউ কেউ ষষ্ঠ/সপ্তম শ্রেণিতে পড়ালেখা করে। অনেকেই গাড়ির গ্যারেজে কাজ করে। আবার অনেকে কিছুই করে না বলে জানা গেছে।

এই মানববন্ধনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপস্থিত থাকার কথা ছিল।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী ১০ বছরের শিশু ইফতেখার বলে, ‘আমি গ্যারেজে কাজ শিখি। বড় ভাই বলল, এক জায়গায় যেতে হবে। তাই আসছি।’

এখানে আসা বাবদ কত টাকা দেওয়া হবে জানতে চাইলে ইফতেখার বলে, কত টাকা দিবে এটাও বড় ভাই জানে।

নারায়ণগঞ্জের পাগলা থেকে আগত রফিক বলে, ‘আগে পড়া লেখা করতাম। এখন কিছুই করি না। বড় ভাই নিয়ে আসছে, তাই এসেছি। দুপুরে খাওয়া বাবদ কিছু টাকা দিতে পারে। তবে বড় ভাইয়ের কাজে আসছি, না দিলেও আসতাম।’

নারায়ণগঞ্জ, খিলগাঁও, বাড্ডা ও কমলাপুর থেকেও বিভিন্ন শিশুদের নিয়ে আসে জাতীয় ছাত্র সমাজের নেতারা। প্রতিটি জায়গা থেকে ১০ থেকে ২০ জন করে শিশু আসে ব্যানার সংবলিত মানববন্ধনে অংশ নিতে।

আরেক শিশু আলী এসেছে মধ্যবাড্ডা থেকে। তাকে নিয়ে এসেছে ছাত্র নেতা বিল্লাল। বিল্লালের নেতৃত্বে ২০ জন শিশু মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে। আলী বলে, ‘বড় ভাই নিয়ে এসেছে। তবে এখানে আসা বাবদ আমাদের নির্দিষ্ট দাবি নেই। ভাই আমাদের খাওয়া বাবদ যা দেয়, তাই খুশি।’

এ ছাড়াও কাজল, সুমন, রাসেলসহ প্রায় ৮০ জন শিশু মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

মানববন্ধনে জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি সৈয়দ মো. ইফতেখার আহসান হাসানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ছাত্র নেতা অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ ভাসানি, শাহ ইমরান রিপন, জিয়াউর রহমান, এরশাদ হোসেন, নোমান মিয়া, ইঞ্জিনিয়ার নাজমুল হক, রফিকুল ইসলাম নিলয় প্রমুখ।

মানববন্ধনে ছাত্র নেতারা সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে বলেন, পরিচ্ছন্ন রাজনীতির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের পাশাপাশি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের ওপর হামলাকারীদের শাস্তি দিতে হবে এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাড়ে ৭ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই