মেইন ম্যেনু

ছিটমহল বিনিময়ে কলকাতায় দ্বিপক্ষীয় বৈঠক আগামীকাল

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সুষ্ঠুভাবে ছিটমহল বিনিময়ের লক্ষ্যে আগামীকাল মঙ্গলবার বৈঠকে বসবেন দুই দেশের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে যোগ দিতে আজ কলকাতা যাচ্ছে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নে সম্প্রতি দুই দেশের সরকার রূপরেখা নির্ধারণ করেছে। রূপরেখা অনুযায়ী, ৩১ জুলাই মধ্যরাত থেকে ছিটমহল হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে।

আর এ প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনার করতে এ বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশের পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। আর ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেবেন দেশটির যুগ্ম-সচিব পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা।

ভারতীয় প্রতিনিধিদলে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের প্রতিনিধিরাও থাকবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, বৈঠকে স্থলসীমান্ত চুক্তি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হবে।

গত মাসে ভারতের লোকসভায় বাংলাদেশ-ভারত স্থলসীমান্ত চুক্তি পাস হয়। আর ৬ জুন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের সময় এই চুক্তির দলিল হস্তান্তর হয়। এরপর ৮ জুন উভয় দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যৌথভাবে জানায়, ৩১ জুলাই মধ্যরাত থেকে ছিটমহল বিনিময়-প্রক্রিয়া শুরু হবে। দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ‘অ্যাপয়েন্ট ডে’ হিসেবে পালনেরও সিদ্ধান্ত নেয় দুই দেশের সরকার।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে দুই দেশের যৌথ উদ্যোগে করা শুমারি অনুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতের ১১১টি ছিটমহল আছে। এগুলোতে ৩৭ হাজার মানুষের বাস করছেন। আর ভারতের অভ্যন্তরে বাংলাদেশের রয়েছে ৫১টি ছিটমহল। এসব ছিটমহলে ১৪ হাজার মানুষ বাস করে। চুক্তির শর্ত অনুযায়ী ছিটমহলবাসীরা কে কোন দেশের নাগরিক হতে চান, সে স্বাধীনতা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই