মেইন ম্যেনু

ছুটির দিনে ঘরহারাদের মুখে যেভাবে হাসি ফোটান এক নাপিত (ভিডিও)

মানুষ সবসময়ই মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায়। সবার হয়তো সামর্থ্য থাকে না। কিন্তু অনেকে যতটুকু সম্ভব তাই নিয়ে অসহায়ের সাহায্য করতে থাকে। এমনই এক ব্যক্তি হলেন নাসির সোবহানি। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে বসবাস করা এই নাগরিক পেশায় একজন নাপিত। সপ্তাহের ছয়দিনই তিনি তার বারবার শপে চুল কাটেন। কিন্তু ছুটির দিনে তিনি নেমে আসেন রাস্তায় এবং অসহায় ও বাস্তুহারাদের চুল কেটে দেন।

এভাবেই অসহায়দের সাহায্য করে চলেছেন ২৬ বছর বয়সী নাসির। নিজের পক্ষে যতটুকু সম্ভব ততটুকু নিয়েই তিনি অসহায়ের পাশে থাকতে চান। আর অভিনব এই উদ্যোগের নাম দিয়েছেন ক্লিন কাট ক্লিন স্টার্ট। আর উদ্যোগটি নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্রও তৈরি হয়েছে।

o-BARBER-570

প্রামাণ্যচিত্রে নাসির বলেন, পরিষ্কার থাকলে মানুষ পরিষ্কার চিন্তা করেত পারে। নতুন কিছু শুরুর আত্মবিশ্বাস পায়। আর এজন্যই এর নাম ক্লিন কাট ক্লিন স্টার্ট।

ছুটির দিনে স্কেটবোর্ড ও চুল কাটার জিনিসপত্র নিয়ে রাস্তায় বেড়িয়ে পড়েন নাসির। তিনি বাস্তুহারাদের চুল কাটার পর ইনস্টাগ্রামে ছবিও পোস্ট করেন।

11385592_1669003259989721_2045836481_n

কানাডা থেকে মেলবোর্নে পাড়ি জমানোর পরেই এমন একটি চিন্তা তার মাথায় আসে বলে জানালেন নাসির। একদিন এক মাদকাসক্ত ব্যক্তি তার কাছে চুল কাটতে আসে এবং জানায় যে তিনি এক মাস মাদক থেকে দূরে আছেন এবং চুল কেটেই তার উদযাপন করতে চান। চুল কাটার পর ছেলেটির মা তার ছবি তোলে এবং আনন্দে কেঁদে দেয়।

11085168_355957957943453_144086490_n

ঘটনাটি নাড়া দিয়ে যায় নাসিরকে। তিনি ভাবতে শুরু করেন কিভাবে আরো মানুষকে খুশি করা যায়। এরপর থেকেই শুরু করেন ক্লিন কাট ক্লিন স্টার্ট।

হেরাল্ড সানকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, আমার মনে আছে একটা সময় আমি আয়নার দিকে তাকিয়ে নিজেকে নিয়ে আফসোস করতাম। রাস্তায় অনেক মানুষকে আমি দেখি নিজেদেরকে নিয়ে লজ্জিত। কিন্তু তাদের চুল কেটে দেয়ার পর তাদের ভেতর চিন্তা আসে যে তাদেরও কিছু মূল্য আছে। তাদের শুধু এতটুকু অনুভুতির জন্যই আমার এই উদ্যোগ।’






মন্তব্য চালু নেই