মেইন ম্যেনু

ছেলে-মেয়ের সম্মতিতেই ধর্ষণ হয়!

ভারতে ধর্ষণ নিয়ে এবার পিলে চমকানো মন্তব্য করেছেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী এবং সমাজবাদী দলের এক নেতা।

শনিবার মন্ত্রী টোটারাম যাদবের কাছে সাংবাদিকদের প্রশ্ন ছিল, রাজ্যের ধর্ষণের ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব কীনা। প্রশ্ন শুনেই ক্ষেপে যান মন্ত্রী। তিনি উল্টো প্রশ্ন করেন,‘ধর্ষণ কি? ধর্ষণ বলে কিছু নেই। একটা ছেলে আর মেয়ের পারস্পরিক সমঝোতার ফলেই ধর্ষণ হয়ে থাকে।’

সমাজবাদী দলের ওই প্রবীণ নেতা আরো বলেছেন, দুই ধরনের ধর্ষণ রয়েছে। তার ভাষায়,‘একটা জোর করে করা হয়। অন্যটি হয় দুজনের সম্মতিতে।’

শনিবার রাজ্যের এক জেলা কারাগার পরিদর্শনে গিয়েছিলেন মন্ত্রী তোতারাম যাদব। পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব মন্তব্য করেন বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে। তবে নিজের এই বিতর্কিত মন্তব্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে রাজি হননি তিনি।

ভারতের নারীরা হরহামেশাই ধর্ষণের মত নির্যাতনের শিকার হয়ে থাকেন। কিন্তু এই অপরাধটি কমিয়ে আনার বদলে বিভিন্ন সময়ে সরকারের দায়িত্বশীল লোকজন কখনো কখনো ধর্ষণ এবং ধর্ষকদের পক্ষে বক্তব্য দিয়ে থাকেন।

গতবছর ধর্ষণ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন সমাজবাদী দলের নেতা মুলায়ম সিং যাদব। মুম্বাইতে দুটি গণধর্ষণের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত তিন ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেনন, ‘ধর্ষণের শাস্তি কী মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত? ছেলেরা এ রকম ভুল করতেই পারে।’






মন্তব্য চালু নেই