মেইন ম্যেনু

ছেলে হত্যার দায় স্বীকার করলেন সেই মা

দেড় বছরের শিশু নিহাল সাদিক হত্যা মামলায় তার মা ফাহমিদা মীর মুক্তি দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জামানের কাছে তিনি ছেলে হত্যার দায় স্বীকার করেন। জবানবন্দি গ্রহণ শেষে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

দুই দফায় ৫ দিনের রিমান্ড শেষে বুধবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরখান থানার পরিদর্শক মো. আলমগীর হোসেন আদালতে জবানবন্দি গ্রহণের আবেদন করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৮ এপ্রিল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উত্তরখান থানাধীন মাস্টার পাড়ার সোসাইটি রোডের বাসায় খুন হয় দেড় বছরের শিশু নিহাল সাদিক।

পুলিশের ধারণা, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহের জের ধরে ঘুমন্ত শিশু নিহালকে খুন করেন তার মা মুক্তি। ছেলেকে খুন করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি।

গত ১৮ এপ্রিল মধ্যরাতে পুলিশ মুক্তিকে হেফাজতে নিয়ে প্রথমে উত্তরা আধুনিক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। ওই রাতেই তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরের দিন ১৯ এপ্রিল শিশুটির বাবা সৈয়দ সাজ্জাদ হোসেন মুরাদ বাদী হয়ে মামলা করেন। অন্যদিকে পুলিশ অত্মহত্যার চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করে।

আসামি মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ, এ মর্মে হাসপাতাল ছাড়পত্র দিলে গত ২৯ এপ্রিল ফাহমিদা মীর মুক্তির ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে পুলিশ। গত ২ মে আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর গত ১৫ মে আদালত এ আসামির পুনরায় দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।






মন্তব্য চালু নেই