মেইন ম্যেনু

ছোট্ট কিছু কাজেই সঙ্গিনীর চোখে হয়ে উঠুন সত্যিকারের ‘প্রিন্স চার্মিং’

সঙ্গিনীর চোখে একেবারে তার স্বপ্নের মানুষটি হয়ে উঠার ইচ্ছা থাকে প্রায় প্রত্যেক পুরুষেরই। কিন্তু সবচাইতে সমস্যা হয় তখনই যখন বুঝতে পারেন না সঙ্গিনী কি চান তার কাছে। পুরুষের কাছে নারীর মন সবসময়ই রহস্যে ঘেরা। কিন্তু সত্যি বলতে কি নারীর চাওয়া কিন্তু খুব বেশী কিছু নয়, তবে তারা আসলেই কি চান তারা মুখ ফুটে বলতে চান না। নারীর কাছে ছোট্ট কিছু কাজই অনেকটা স্বপ্নের মতো মনে হতে থাকে। এবং সঙ্গীর ছোট্ট কিছু কাজেই তারা মোহিত হয়ে যান। তাই সঙ্গিনীর মুখে না বলা ছোট ছোট ইচ্ছেগুলো পূরণ করেই তার চোখে স্বপ্নের পুরুষটি হয়ে যেতে পারেন।

১) প্রতিদিন সকালে এবং রাতে সঙ্গিনীকে খুশি করতে চাইলে কিছুই নয় মিষ্টি করে একটি ম্যাসেজ পাঠান। যদি আপনার স্ত্রী আপনার পাশেই থাকেন তাহলে তার সাথে মিষ্টি করেই দিনের শুরু এবং শেষের শুভেচ্ছা জানান। এই কাজটি অনেকেই করেন না, কিন্তু এই কাজটিই নারীদের অনেক পছন্দের।

২) ছোট ছোট সারপ্রাইজ প্ল্যান করুন সঙ্গিনীর জন্য। নারীরা সারপ্রাইজ পেতে খুবই পছন্দ করেন। আপনাকে অনেক খরচ করে কিছুই করতে হবে না, ছোট্ট উপহার কিংবা একটি ফুলই তাকে খুশি করে দেয়ার জন্য যথেষ্ট।

৩) সঙ্গিনীকে সময় দিন। আপনার সাথে তিনি দামী রেস্টুরেন্টে নয় বরং দু’ঘণ্টা বসে কথা বলার সময় পেলেই অনেক খুশি থাকবেন। দামী উপহার নয় একটু সময় দিন সঙ্গিনীকে নিজের ব্যস্ত সময় থেকে।

৪) সঙ্গিনীর পছন্দের একটু খোঁজ খবর রাখুন। কারণ নারীরা সবসময়েই এমন পুরুষ চিন্তা করেন যিনি তার পছন্দের মূল্য দেবেন, তার পছন্দের খবরাখবর রাখবেন। আর কিছু না হোক সঙ্গিনীর পছন্দের খাবার, রঙ, শখ ইত্যাদির খোঁজ তো রাখতেই পারেন।

৫) নারীরা প্রশংসা শুনতে খুবই পছন্দ করেন। তাই সময় সুযোগ পেলেই সঙ্গিনীর প্রশংসা করুন। প্রশংসনীয় কিছু হলেই যে প্রশংসা করা যাবে এমনিতে করা যাবে তাও কিন্তু নয়। একটু বাড়তি প্রশংসাই না হয় করলেন সঙ্গিনীর মন রক্ষার্থে, তার খুশির জন্য।

৬) সঙ্গিনীর জন্য সঙ্গিনীর পছন্দের গানটাই গেয়ে শোনান। আপনাকে গায়ক হতে হবে না, নিজের হেঁড়ে গলাতেই না হয় গাইলেন। এতে সঙ্গিনী অনেক খুশি হবেন, কারণ তার কাছে মনে হবে আপনি তার জন্য, তাকে খুশি করার জন্য কতো কিছুই না করছেন।

৭) সঙ্গিনীর স্বপ্নের পুরুষ হতে চাইলে সঙ্গিনীর সাপোর্টে তার পাশে থাকার চেষ্টা করুন। তার মনের কষ্টের সময় তার প্রতি নিজের মমতা প্রকাশ করুন। তাকে সহজ হওয়ার সময় দিন, তার পাশে থাকুন। আপনি কিছু না করলেও তিনি এতেই খুশি থাকবেন।

৮) যখনই সুযোগ পাবেন তখন সঙ্গিনীকে জানান আপনি তাকে কতোটা ভালোবাসেন। নারীরা ভালোবাসার প্রকাশ খুবই পছন্দ করেন। তারা সবসময় চান তার স্বপ্নের পুরুষটি সবসময় তাকে ভালবাসুন এবং তার ভালোবাসা প্রকাশ করুন।

সূত্র: indiatimes






মন্তব্য চালু নেই