মেইন ম্যেনু

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া এখন সময়ের দাবি

রুখো জঙ্গি, বাঁচাও দেশ; তোমার-আমার বাংলাদেশ স্লোগানকে সামনে রেখে সম্মিলিত সংগ্রাম পরিষদের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচী সুধী সমাবেশ-এ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া এখন সময়ের দাবি বলে জানানো হয়।

শনিবার (৩০ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে বিভিন্ন সংগঠনের অনুষ্ঠিত কর্মসূচী হয়।

বক্তরা বলেন, আমরা আজ সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ। যারা দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌম ও দেশের অগ্রযাত্রা নিয়ে ষড়যন্ত্র করবে তাদের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে। দেশের মাটি থেকে তাদের বিতারিত করতে আজ দেশের সকল মানুষ ঐক্যবদ্ধভাবে এই সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের নোংরা কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও সচেতন।

সম্মিলিত সংগ্রাম পরিষদের ব্যানারে সাভার অঞ্চলের এমপি এনাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে যেভাবে বিশ্বের দরবারে সুনামের সহিত তুলে ধরেছে, কতিপয় মানুষ জঙ্গি তৎপরতার মাধ্যমে সেই সুনাম ও দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে ষড়যন্ত্র করছে। যা আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মোকাবেলা করতে হবে।

সুধী সমাবেশ-এর সভাপতি ও সম্মিলিত সংগ্রাম পরিষদের সমন্বয়ক কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য, মীর কাসেম আলীর বিচার কাজ বিলম্বিত করার মাধ্যমে বিএনপি-জামায়াতের নাসকতার সুযোগ তৈরি করার সামিল বলে আমরা মনে করছি। আর তাই সরকারকেই সর্বপ্রথম এগিয়ে আসতে হবে মানবতাবিরোধী অপরাধীদের মুলউৎপাটন করে দেশে শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত দেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান বানানোর যে ষড়যন্ত্র করছে, যেভাবে জঙ্গি তৎপরতার মাধ্যমে দেশের যুব সমাজকে ভ্রান্ত পথে পরিচালিত করার অপকৌশল গ্রহণ করেছে, যেভাবে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে ষড়যন্ত্র করছে তা এই যুব সমাজকে সাথে নিয়েই মোকাবেলা করা হবে এবং তাদের নীল নকশাসহ তাদের এই দেশের মাটি থেকে বিতারিত করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চেতনায় মুক্তিযুদ্ধ-৭১’র সভাপতি, শেখ মো. আবদুর রাজ্জাক শাকিল, চেতনায়-৫২ সভাপতি, সৈয়দ রাজিব আহাম্মদ, বিজয় উল্লাস চেতনায়-৭১’র সভাপতি, জাহাঙ্গীর খান বাবু, উই আর সাউথ এশিয়ান এর সমন্বয়ক শরিফ মোহাম্মদ মাসুমসহ বিভিন্ন সংগঠেনের নেতাকর্মী।






মন্তব্য চালু নেই