মেইন ম্যেনু

জটিল রোগ দমনে সবুজ চা

সবুজ চায়ে নিহিত অনেক উপকার সম্পর্কে আমরা সবাই কমবেশি জানি। স্বাস্থ্য উপকারী নানা কাজ সম্পাদনের সঙ্গে অসাধারণ লাবণ্যময় সতেজ ত্বক উপহার দিতে সবুজ চা অতুলনীয়। দেহের জটিল রোগগুলোকে দমন করতেও সবুজ চায়ের তুলনা হয় না। নানা প্রসাধন সামগ্রীতেও ব্যবহার হয় সবুজ চায়ের নির্যাস। সবুজ চায়ে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসহ বেশ কিছু স্বাস্থ্যকর পুষ্টি উপাদান রয়েছে। আসুন জেনে নেয়া যাক সবুজ চায়ের গুণাগুণ সম্পর্কে –

– সবুজ চায়ের পলিফেনল শরীরের ফ্যাট অক্সিডেশন প্রক্রিয়াকে কার্যকর করে খাবার থেকে ক্যালরি তৈরি প্রক্রিয়ায় সহায়তা করে। ফলে দেহে অতিরিক্ত চর্বি জমতে পারে না।

– সবুজ চা রক্তের গ্লুকোজ এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। খাওয়ার পরে রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ে, যা সবুজ চা প্রত্যক্ষভাবে নিয়ন্ত্রণ করে।

– সবুজ চা শরীরের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক থাকে। তাছাড়া এই চা রক্ত জমাট বাধতে দেয় না। ফলে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা অনেক কমে যায়।

– এটা খাদ্যনালীর ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। এছাড়াও ভালো কোষগুলোর কোনো ক্ষতি না করে সার্বিকভাবে ক্যানসারের কোষ নির্মূল করে।

– সবুজ চা শরীরের ক্ষতিকর কলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি উপকারী কোলেস্টেরলের পরিমাণ বাড়ায়।

– সবুজ চায়ের ‘ক্যাটেকাইন’ নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মুখের ভিতরের বিভিন্ন ব্যকটেরিয়া ও ভাইরাস ধ্বংস করে। যা গলার ইনফেকশনসহ দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা কমিয়ে আনে।

– সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাবে অল্প বয়সেই বুড়িয়ে যেতে পারে আপনার ত্বক। সবুজ চায়ের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্ষতিকর প্রভাব দূর করে আপনার বুড়িয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।

– প্রকৃতির এই অনন্য উপহার মানবকোষের নবায়নের প্রক্রিয়ায় দারুণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম। পুরোনো কোষগুলোকে জৈবিকভাবে শক্তি জোগাতে পারে সবুজ চায়ের ‘পলিফেনল’ উপাদান।

– ব্রণ ও ফুসকুড়ি ঠেকাতে খুবই উপকারে আসে সবুজ চায়ের ব্যাকটেরিয়া রোধক উপাদান ‘ক্যাটেচিন’।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই