মেইন ম্যেনু

জনগণকে গণতন্ত্র বিরাগি করতে মত্ত সরকার

দেশের মানুষকে গণতন্ত্র থেকে দূরে সরিয়ে দিতে রাজনৈতিক দলগুলোকে সরকার সভা সমাবেশ করতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লবে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নামে মিথ্যা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার প্রতিবাদ, মহান স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমান ও আজকের বাংলাদেশ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। জাতীয়তাবাদী বন্ধু দল এ সভার আয়োজন করে।

সরকার বিরাজনীতি করার চেষ্টা করছে এমন অভিযোগ করে নোমান বলেন, সাধারণ মানুষকে গণতন্ত্রের প্রতি বিরাগি করতেই সরকার রাজনৈতিক দলেরগুলোকে সভা সমাবেশের সুযোগ দিচ্ছে না। শুধু তাই নয়, দেশের অন্যতম বড় দল বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর বিভিন্নধরণের হামলা, মামলা দিয়ে গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামকে ঠেকানোর চেষ্টা করছে।

আসন্ন (ইউপি) নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি থেকে যারা নির্বাচনে অংশ নিয়েছে সরকার তাদেরকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন নিপিড়নের মাধ্যমে গ্রাম ছাড়া করছে।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যানরা নির্বাচিত হলে সরকারি সম্পদ লুটেপুটে খাবে এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, বর্তমান এমপি মন্ত্রীরা যেভাবে সরকারি সম্পদ লুটেপুটে খাচ্ছে ঠিক সেভাবে ইউপি চেয়ারম্যানদেরও সম্পদ লুটেপুটে খাওয়ার ব্যবস্থা করছে এই সরকার। কারণ তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। কারো কাছে তাদের জাবাবদিহীতা দেয়ার প্রয়োজন হয়না।

১৯ মার্চ বিএনপির কাউন্সিলের মাধ্যমে একটি সুসজ্জিত দল গঠনের মাধ্যমে জনগণের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম আরো জোরদার হবে বলেও জানান তিনি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শারীফ মোস্তফাজামান লিটুর সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সংগঠনের আহ্বায়ক ইঞ্জি. এইচ. এম. আমিনুর রহমান প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই