মেইন ম্যেনু

জনগণের সিদ্ধান্ত দেয়ার ক্ষমতা তালাবন্দি করেছে ইসি

নির্বাচন কমিশনের মদদে এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাহারায় পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনেও জনগণের ভোটাধিকার লুট করে নিচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা। এ অভিযোগ বিএনপির।

পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে সকাল থেকে আগে মতো ভোটকেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদান, জোর করে নৌকা প্রতীকে সিল মারা, বিরোধী দলের চেয়ারম্যান প্রার্থিদের এজেন্টদের মারধর ও ব্যালট বক্স ছিনতাইয়ের ঘটনা অব্যাহত রয়েছে। এতে আবারও প্রমাণিত যে, ইসি জনগণের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেয়ার ক্ষমতাকে তালাবন্দি করে দিয়েছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ অভিযোগ করেন।

নির্বাচন কমিশনকে ‘সরকারের তল্পিবাহক, আজ্ঞাবাহী ও সেবাদাস’ হিসেবে আখ্যায়িত করে রিজভী বলেন, এ কমিশন ক্ষমতাসীনদের দুঃশাসনকে প্রলম্বিত করার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিজেদের প্রতিষ্ঠান ধ্বংসকারী হিসেবে পরিচিত হয়েছে।

ইসির সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র রক্ষা নয়, চাকরি রক্ষার্থেই নির্বাচন কমিশনের কর্তারা কাজ করে যাচ্ছেন। সেজন্য তারা তাদের বিবেক বিক্রি করে দিয়েছেন। যাদের কাছে বিক্রি করেছেন তাদের সবাইকে আমরা চিনি। তারা এখন নির্বাক। তাদের কলঙ্কের তীব্রতা এতটাই বেশি যে, তা ছাইচাপা আগুনের মতো লুকানো থাকছে না।’

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে শতাধিক মানুষের প্রাণ চলে যাওয়া, হাজার হাজার মানুষের পঙ্গুত্ববরণ, সরকারি দলের অনুকূলে প্রায় অধিকাংশ ইউপি চেয়ারম্যানকে জিতিয়ে দেয়ার পরও কমিশন অকপটে সরকারের পক্ষে সাফাই গেয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী চট্টগ্রামের চন্দনাইশ, বোয়ালখালী, রাঙ্গুনিয়া ও পটিয়া উপজেলা, ফেনির দাগনভূঁইয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা, নরসিংদী সদর এবং কুমিল্লার হোমনা উপজেলার বিভিন্ন ইউপি নির্বাচনে নানা অনিয়মের চিত্র তুলে ধরেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হারুন-অর রশিদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, যুবদলের দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সম্পাদক কাজী রফিক, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই