মেইন ম্যেনু

জবিতে ভর্তিপরীক্ষায় জালিয়াতি, ৪ জনের কারাদণ্ড

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তিপরীক্ষায় এসএমএস এর মাধ্যমে জালিয়াতির দায়ে চারজনকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে দুইজন ভর্তি পরীক্ষার্থী এবং অপর দুই জন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী। এছাড়া, জালিয়াতির অভিযোগে ফয়সাল নামে অপর এক পরীক্ষার্থীকে আটক করে রমনা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় জবি ভর্তি পরীক্ষায় দায়িত্বরত ভ্রাম্যমাণ আদালত আটককৃতদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের ৫ম ব্যাচের শিক্ষার্থী রাকিবুল এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের একই ব্যাচের শিক্ষার্থী রাশিদুল ইসলাম। এছাড়া অন্যদুজন হলেন- ভর্তি পরীক্ষার্থী মোকাম উদ্দীন গাজী এবং জোবায়ের।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মমতাজ বেগম বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষার্থী মোকাম উদ্দীন গাজী এবং জোবায়েরকে জালিয়াতির দায়ে ১ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। অপরদিকে, তাদের জালিয়াতি করতে সহায়তা করায় রাকিবুলকে পাবলিক পরীক্ষা আইন ১৯৮০ এর ৯ ধারা অনুযায়ী ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে এবং জালিয়াতিতে সহযোগিতা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে বিচারিক কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাশিদুল ইসলামকে পাবলিক পরীক্ষা আইন ১৯৮০ এর ৯ ও ১১ ধারা অনুযায়ী ২ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বাংলাবাজার গার্লস স্কুল কেন্দ্রের ৩০৫নং কক্ষ থেকে মোবাইলসহ আটক করা হয় মোকাম উদ্দীন গাজীকে। তাকে জালিয়াতিতে সাহায্য করার অভিযোগে জবির প্রধান ফটকের সামনে রাস্তার বিপরীত পার্শ্বে অবস্থিত ফুজি গলির সামনে থেকে জবি শিক্ষার্থী রাকিবুল এবং রাশিদুল ইসলামকে আটক করা হয়। এছাড়া, জোবায়েরকে সিটি কলেজ থেকে আটক করে সাজা দেয়া হয়।

আর থানায় সোপর্দ করা ফয়সালকে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী গার্স স্কুল থেকে আটক করা হয়। জবি প্রক্টর ড. নূর মুহাম্মদ বিষয়টি বাংলামেইলকে নিশ্চিত করেছেন। পরীক্ষা চলাকালীন তাদের আটক করা হয়। শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, এবার ‘ডি’ ইউনিটের ৫৬০টি আসনের বিপরীতে মোট ৪৯ হাজার ৯৩০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করে অর্থাৎ প্রতি আসনের বিপরীতে লড়েছে ৮৯ জন পরীক্ষার্থী। মোট চব্বিশটি কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই