মেইন ম্যেনু

জাতিসংঘের অধীনে নির্বাচন চায় বিএনপি

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে জাতীয় কোনো নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ করা উচিৎ হবে না জানিয়ে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেছেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের অধীনে ছাড়া দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করা যায় না। আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটির অধীনে জাতীয় নির্বাচন হলেই কেবল বিএনপি নির্বাচনে আসা উচিত।’

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সংসদ আয়োজিত ‘ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও গণতন্ত্রের ভবিষৎ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘের হস্তক্ষেপে সেনাবাহিনীর সহযোগিতা ছাড়া দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না। অতীতের নির্বাচনগুলো থেকে বিএনপির শিক্ষা নেয়া উচিত। দেশে বর্তমানে নির্বাচনের নামে খেলা চলছে। জেনেশুনে বিষপান করবে না বিএনপি।’

শাহ মোয়াজ্জেম বলেন, ‘বিএনপিকে বুঝতে হবে, এদেশে নির্বাচন কমিশন ক্ষমতাসীন দলের নিয়ন্ত্রণাধীন। র‍্যাব-পুলিশকে তারা নিজস্ব সংস্থায় রূপান্তরিত করেছে। তাদের দলীয় এসব সংস্থা দিয়ে কীভাবে নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করা যায়?’

তিনি আরো বলেন, ‘গত সিটি করপোরেশন নির্বাচন এবং পৌরসভা নির্বাচনে অংশ না নিতে আমার পরামর্শ ছিলো। যাই হোক, দলের পলিসি ঠিক করার জন্য স্ট্যান্ডিং কমিটি আছে। স্ট্যান্ডিং কমিটির অর্থ হচ্ছে ‘খাড়া কমিটি’। খাড়া কমিটি বসে বসে নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়ার বিষয়গুলো ঠিক করে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘দেশে বর্তমানে গণতন্ত্র নেই। সারাদেশে কারাগারের ভয়াবহতা বিরাজ করছে। কারাগারে তবুও দু’বেলা খেতে দেয়। কিন্তু বাহিরে বের হলে মা-বোনেরা ইজ্জত নিয়ে ঘড়ে ফিরতে পারবে কিনা তার গ্যারান্টি নেই। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সরকার দলীয় লোকেরা এসব বর্বরতা চালাচ্ছে।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি চৌধুরী রাজিব হাসান রিপনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমতউল্লাহ, জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কেএম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই