মেইন ম্যেনু

জাতীয় ঐক্য ও সংলাপের প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে

সংলাপের জন্য বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাকে সরকার সাড়া না দিলেও দলটির পক্ষ থেকে এই আহ্বান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘সরকার যাই বলুক না কেন, বিএনপির সংলাপ এবং জাতীয় ঐক্যের প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।

৭ নভেম্বর ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উপলক্ষে শনিবার সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে তিনি এ কথা বলেন।

লন্ডনে গত বৃহস্পতিবার এক সমাবেশে খালেদা বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে বর্তমান সরকার রাজনৈতিক সংকটের সূচনা করেছে।’ সময় থাকতে এ সংকট থেকে উত্তরণের উপায় বের করতে সংলাপের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

তবে খালেদা জিয়ার এই সংলাপের আহ্বানকে বরাবারের মতো নাকচ করে দিয়েছেন শাসকদলের নেতারা। সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আজকের পৃথিবীতে সংলাপে বসতে হলে যোগ্যতা লাগে। যোগ্যতা ছাড়া সংলাপ হয় না। আন্দোলন করার শক্তি যাদের নেই, তারাই এখন ঘন ঘন সংলাপের কথা বলে।

অন্যদিকে সিলেটে এক অনুষ্ঠান শেষে খালেদার সংলাপ প্রস্তাব সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী ‘রাবিশ, রাবিশ’ বলে মন্তব্য করেন।

মওদুদ আহমেদ বলেন, ‘দেশে এখন রাজনীতি নেই। গণতন্ত্র নেই। যেটুকু গণতন্ত্র আছে তাও নিয়ন্ত্রিত।’

দলীয় প্রতীকে স্থানীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দেশে ফিরলে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে খুব সম্ভবত বিএনপি এই নির্বাচনে যাবে। ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেওয়া হবে না।’






মন্তব্য চালু নেই