মেইন ম্যেনু

জাতীয় পার্টির মহাসচিবকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

রাজশাহীতে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন বাবলুকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। জেলার তৃণমুলের নেতৃবৃন্দ এ ঘোষণা দেয়। মঙ্গলবার রাজশাহী জেলা জাতীয় পার্টির ৯টি উপজেলা, ১৪টি পৌরসভা, ৭২টি ইউনিয়নের তৃণমুলের নেতৃবৃন্দ একযোগে পার্টির মহাসচিবকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন। বিকেলে জেলা জাতীয় পার্টির তৃণমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের আয়োজনে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ আলোচনা সভা থেকে এক হাজারের বেশি জেলা, থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতারা এ অভিযোগ জানান।
এসময় তৃণমুল নেতাকর্মীরা তাদের বক্তব্যে অভিযোগ করেন, মহাসচিবের স্বজনপ্রীতি, ব্যাক্তিস্বার্থ, বিএনপি-জামায়তের হাতকে শক্তিশালী করতে তাদের এজেন্দা অনুযায়ী কাজ করতে জাতীয় পার্টিকে ধ্বংসের জন্য পাঁয়তারা করছে।

তৃণমুলের নেতারা তাদের বক্তব্যে আরো অভিযোগ করেন যে, জাতীয় পার্টির ত্যাগী নেতাদের ধীরে ধীরে দল থেকে সরিয়ে ফেলার মুল নায়ক হিসেবে মহাসচিবের প্রত্যক্ষ ভূমিকা আছে। সে কারণে দলকে বাঁচাতে তাদের এখন মহাসচিবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।

আলোচনা সভায় নেতাকর্মীরা তাদের বক্তব্যে জানান, গত নির্বাচন ছিল সংবিধান রক্ষার নির্বাচন। আর সেই নির্বাচনে অংশ নিয়ে রওশন এরশাদ সংবিধান রক্ষা করেছেন। তিনি যদি নির্বাচনে অংশ না নিতেন তাহলে দেশের সংবিধান রক্ষা করা যেতো না। গণতন্ত্র পড়তো হুমকির মুখে।

তৃণমুলের নেতাকর্মীরা তাদের বক্তব্যে আরো বলেন, জাতীয় পার্টির নেতা শাহাবুদ্দিন বাচ্চুর নের্তৃত্বেই জেলা জাতীয় পার্টি আজ চাঙা হয়ে উঠেছে। কিন্তু হাতেগোনা কয়েকটি নেতা কুচক্র করে জেলা জাতীয় পার্টির ধ্বংসের পাঁচতারা করছেন। এটা থেকে জাতীয় পার্টিকে বাঁচাতে হবে। তৃণমুলের নেতাকর্মীরা শাহাবুদ্দিন বাচ্চুকে তাদের নের্তৃত্ব দেয়ার জন্য অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে তৃণমুল নেতাদের চাপের মুখে পার্টিকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে প্রতিটি ইউনিটের কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে হ্যা না ভোট করে ১০০ ভাগ হ্যা ভোটের মাধ্যমে রাজশাহী জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি হিসেবে শাহাবুদ্দিন বাচ্চুকে সভাপতি নির্বাচিত করে ৩১১ সদস্যের একটি জেলা কমিটি গঠন করা হয়। এসে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয় জাতীয় পার্টির নেতা নুরুল ইসলাম মাস্টার, সাংগঠনিক মাসুদুজ্জামান মাসুদ, নাসির হায়দার, সরদার জুয়েল।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তৃণমুল জাতীয় পার্টির রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম মাস্টার।
অনুষ্ঠানে অতিথি উপস্থিত ছিলেন জেলা জাপার প্রবীণ নেতা মাইনুল ইসলাম, জাপা নেতা অধ্যাপক আমিনুল হক, বদিউজ্জামান বদি, ফরমান আলি, অধ্যাপক গাফফার, অধ্যক্ষ আনিসুর রহমান, মাসুদুজ্জামান, সাবেক চেয়ারম্যান মনোয়ারুল ইসলাম মামুন ও আতাহার মাস্টার , সামসুদ্দিন ম-ল, সালাম মাস্টার, আবু তালেব, রাজু আহমেদ, আজিবার রহমান, রায়হান আলী, নাসিমা বেগম, মোহনপুর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান বানেছা বেগম, ছাত্রসমাজের জেলা সভাপতি নুর মো. খোকন, স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার করিম, যুবসংহতির সভাপতি এনামুল হক, মুক্তিযোদ্ধা পার্টির সভাপতি হারুনর রশিদ , মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টির সভাপতি নুরে আলম সিদ্দিকি, কৃষক পার্টির সভাপতি কাজিমুদ্দিন, মৎস্যজীবী পার্টির সভাপতি মেরাজ উদ্দিন, হকারস পার্টির সভাপতি দুলাল আহমেদ, সাংস্কৃতিক পার্টির সভাপতি রসেদুজ্জামান রাসেদ, ওলামা পার্টির সভাপতি মাওলানা মফিদুল ইসলাম, মোটর শ্রমিক পার্টির সভাপতি আঃ সাত্তার। সার্বিক তত্ত্বাবধয়নে ছিলেন জাতীয় পার্টি রাজশাহী জেলার নীতি নিরধারনি কমিটির সদস্য সচিব বরজাহান আলী পিন্টু।






মন্তব্য চালু নেই