মেইন ম্যেনু

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩১ জনকে ঘুষ ছাড়াই নিয়োগের দাবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিগত চার বছরে ২৭ জন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ ১৩১ জনকে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ভিত্তিতে ঘুষ ছাড়াই অফিস সহায়ক পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি করেন তিনি।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাবের সামনে এক সমাবেশে, ঘুষ ছাড়া চাকরি পেয়েছেন এমন লোকের খোঁজ পেলে আমার কাছে নিয়ে আসবেন। আমি প্রেসক্লাবের সামনে তার ছবি সাঁটিয়ে রেখে দেব যাতে দেশের ১৬ কোটি মানুষ তাকে দেখতে পারে এবং তাকে ‘সম্বর্ধনা দেব’ বলেছেন।

এ আহ্বানের সূত্র ধরে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম উদ্দেশ্যে করে ড. হারুন-অর-রশিদ বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিগত চার বছরের অন্যসব নিয়োগের কথা বাদ দিলেও সম্প্রতি ২৭ জন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ ১৩১ জনকে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ভিত্তিতে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে, যাদের কারও ‘অন্যকে ঘুষ দেয়ার বিনিময়ে’ চাকরি লাভের প্রশ্নই ওঠে না।

তিনি বলেন, জনাব সেলিম তাদের ব্যক্তিগত সাক্ষাৎকার গ্রহণ ও যাচাই-বাছাই করে নিতে পারেন। ছবিসহ তাদের তালিকা আপনার কাছে পাঠানো হবে। আশা করি, তাদের সম্বর্ধনা দিয়ে আপনি আপনার কথা রাখবেন।

তিনি আরও বলেন, ঘুষ দুর্নীতি স্বজনপ্রীতি যে আমাদের সমাজ-রাষ্ট্রীয় জীবনে বিদ্যমান ব্যাধি ও বহুল আলোচিত বিষয়, তা সর্বজনবিধিত। তবে একথাও সত্যি যে, দেশে এমনও অনেকে রয়েছেন যারা এসব অপরাধ থেকে মুক্ত।

‌প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার ‘ঘুষ ছাড়া চাকরি পেয়েছেন এমন লোককে সম্বর্ধনা দেবেন সেলিম’ এমন শিরোনামে একটি প্রতিবেদন একটি জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশ হয়।






মন্তব্য চালু নেই