মেইন ম্যেনু

জানেন কি নারীদের চেয়ে বেশি শপিং করেন পুরুষরা?

শপিং করা নিয়ে নারীদের খুব নিন্দা । তাঁরা নাকি ঘণ্টার পর ঘণ্টা শপিং করেই সময় কাটিয়ে দেন । এই নিয়ে পুরুষমহলে কম কথা হয়না। তাঁরা মনে করেন শপিং করা স্রেফ সময় নষ্ট । এতে নাকি শুধুই পয়সার অপচয়। নারীদের সঙ্গে দোকানে দোকানে তল্পিবাহক হয়ে ঘুরে বেরিয়ে তাঁদের কালঘাম ছুটে যায় । তাই বাবা, দাদা, ভাই, বয়ফ্রেন্ড, স্বামীদের নাজেহাল অবস্থা, প্রচুর প্রচুর কমপ্লেইন।

তবে জানেন কি, সরষের মধ্যেই এতকাল ভূত লুকিয়ে ছিল ? সেই ভূত সরষে খেত থেকে বেরিয়ে ধরা দিয়েছে।

এক জরিপে উঠে আসে এই তথ্য যে, শপিংয়ে মহিলাদের নাকি কয়েক গোলে হারিয়ে দেয়েছে পুরুষরা। তাঁদের নামের আগেও ‘শপারহলিক’ বিশেষণ যোগ হয়েছে। একটি অনলাইন শপিং সাইটে তেমনই সত্য প্রমাণিত হয়েছে । দেখা গেছে, সেই সাইটে মহিলাদের দ্বিগুণ শপিং করেছেন পুরুষরা । প্রচুর পয়সা উড়িয়েছেন। সেই অনলাইন সাইটের ৬০ শতাংশ অর্ডারই গেছে পুরুষদের মাউসের ক্লিকে। এমনকী, সেই সাইটের ৮০ শতাংশ ক্রেতাই নাকি পুরুষ । এই হচ্ছে অবস্থা। তাহলে নারীরা এবার আর কথার বানী সহ্য না করলেও হবে।
সাইটটির সমীক্ষা বলছে, নারীরা উইন্ডো শপিংয়েই বেশি সময় কাটিয়ে দেন । তারপর কিছু পছন্দ হলে কেনেন, না হলে ছেড়ে দেন । কিন্তু পুরুষেরা এরচেয়ে আরও এক কাঠি এগিয়ে । উইন্ডো শপিংয়ের সঙ্গে রীতিমতো কেনেকাটাও সেরে ফেলেন চুপি চুপি ।

আরও একটা কথা মহিলাদের কানে তুলে রাখা ভালো, পুরুষদের এই শপিং ফ্যান্টাসি জিনিসটা কিন্তু বেশির ভাগ সময়ই তাঁরা লুকিয়ে রাখেন । ভয়ে । টিপ্পনী ব্যাকফায়ার হয়ে গেলে কে প্রেসটিজ সামলাবে বলুন ! তাই লজ্জার কথা লুকিয়ে রাখাই নাকি ভালো !






মন্তব্য চালু নেই