মেইন ম্যেনু

জানেন কি সিগারেটের চেয়ে কতটা বেশি ক্ষতিকর হুঁকা?

ধূমপানে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে হুঁকা বা শিশা। এর কারণ, অনেকেই একে তেমনটা ক্ষতিকর বলে মনে করেন না। তবে রুটজার ইউনিভার্সিটি সাম্প্রতিক গবেষণায় বলা হয়, সিগারেটের চেয়ে ২৫ গুন বেশি ক্ষতিকর উপাদান রয়েছে হুকাহতে। নতুন গবেষণাপত্রটি ‘পাবলিক হেলথ রিপোর্টস’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়, শিশা ব্যবহারকারীদের অধিকাংশই ২৫ বছরের নিচে। এদের ২৪ শতাংশ হুঁকার পাইপ একে অন্যের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন। পানির বেসিন হয়ে তামাকের ধোঁয়া সেই পাইপ দিয়ে টেনে নেওয়া হয়। এ কারণে তামাকের ক্ষতিকর পদার্থ পানিতে আটকে যায় বলে বিশ্বাস করেন সবাই। আর এটাই বহুল প্রচলিত ভুল ধারণা বলে চিহ্নিত করেছেন গবেষকরা।

ইউনিভার্সিটি অব পিটর্সবার্গ স্কুল অব মেডিসিনের গবেষকরা জানান, হুঁকা ২.৫ গুণ বেশি পরিমাণ নিকোটিন, ১০ গুন বেশি কার্বন মনোক্সাইড, ২৫ গুন বেশি টার এবং ১২৫ গুন বেশি ধোঁয়া সরবরাহ করে। গবেষণায় বিশেষজ্ঞরা হুঁকার মাধ্যমে নেওয়া বিভিন্ন ধরনের তামাক নয়ে ১৭টি গবেষণা পরিচালিত করেন। প্রধান গবেষক ড. ব্রায়ান এ প্রিমাক বলেন, সিগারেট এবং হুঁকা খাওয়ার পদ্ধতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। দিনে ২০টি সিগারেট হয়তো খাওয়া হয়। অর্থাৎ ধূমপায়ী দিনে ২০ বার তামাক নিচ্ছেন।

এতবার হয়তো হুঁকা নিয়ে বসা হয় না। কিন্তু ২০টি সিগারেটের চেয়ে বেশি ক্ষতি ঘটে যায় এক বা দুই বার হুকাহ ব্যবহার করাতে। তাই একবার সিগারেটের সঙ্গে একবার হুঁকা-এর কোনো তুলনা করাটাই বোকামি। হুকাহ অনেক অনেক বেশি ক্ষতিকর। হুকাহ ব্যবহারকারীরা অনেক বেশি বিষাক্ত পদার্থ নেন দেহে। গবেষণায় আরো বলা হয়, হুঁকা বা ই-সিগারেট ব্যবহারের সংখ্যা বাড়ছে। মানুষ সিগারেটের ক্ষতি থেকে বাঁচতে এগুলোতে ঝুঁকে পড়ছেন। অথচ আরো বেশি ক্ষতির দিকে নিজেকে টেনে নিচ্ছেন।






মন্তব্য চালু নেই