মেইন ম্যেনু

জানেন, টাকা দিয়ে শরীর পেতে চান কারা?

কোন ধরনের মানুষ পেড সেক্সে আগ্রহী হন তা সমাজবিজ্ঞান এবং মনোবিদ্যার চর্চার বিষয়। এই সংক্রান্ত সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য উঠে এল।

প্রচলিত ধারণা হল অবিবাহিতদের মধ্যে শরীর সংক্রান্ত কৌতূহল বেশি থাকায় তাঁদের মধ্যেই পেড সেক্স বা টাকার বিনিময়ে শরীর পাওয়ার প্রবণতা বেশি। কিন্তু সাম্প্রতিক একটি গবেষণা সম্পূর্ণ অন্য কথা বলছে। আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্টের কুইনস বিশ্ববিদ্যালয়ের ডার্ক শুবোৎজ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার উইটওয়াটার্সর‌্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সুসান হুশকে, এই দুই গবেষক একটি যুগ্ম গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছেন সম্প্রতি এই বিষয়ে।

সংবাদ সংস্থা আইএনএসের খবর, গবেষকরা একটি অনলাইন সমীক্ষা করেন। ৪৪৬ জন পুরুষ এতে অংশ নেন। এর বাইরে প্রচুরজনের সঙ্গে মুখোমুখি সাক্ষাৎকারও নেন তাঁরা। সমীক্ষিত পুরুষদের বয়স ৩১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। গবেষণা বলছে, সমীক্ষিত পুরুষদের প্রায় ৫০ শতাংশই হয় বিবাহিত নয়তো কোনও সম্পর্কে রয়েছেন এবং এঁদের মধ্যেই টাকার বিনিময়ে শরীর পাওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি।

এর কারণ হিসেবে উঠে এসেছে দু’টি বিষয়— ১) আত্মবিশ্বাসের অভাব এবং ২) যৌনতাহীন বিবাহিত সম্পর্ক। সমীক্ষিত পুরুষদের বেশিরভাগের কাছেই পেড সেক্স গ্রহণ করার পিছনে এই দু’টি যুক্তিই প্রধান। বিশেষ করে দ্বিতীয় কারণটি অনেক বেশি প্রকট। তাঁদের মতে, দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্কহীন বিবাহিত জীবনযাপন করার পরে তাঁদের মধ্যে এক ধরনের অবসাদ জমা হয়। তাই তাঁরা এই টাকার বিনিময়ে শরীর পেতে আগ্রহী হন।

এঁদের অনেকেরই মত, যৌনকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের মধ্যে অসৎ কিছু নেই। সেখানে সবটাই সোজা হিসেব। বরং বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক বা ওয়ান নাইট স্ট্যান্ডই তাঁদের মতে অনৈতিক। যেহেতু এই গবেষণাটি বিদেশি তাই ভারতীয় প্রেক্ষাপটে চিত্রটি ঠিক কী তা ঠিক বলা যায় না।






মন্তব্য চালু নেই