মেইন ম্যেনু

জানেন, হার্টে উৎপন্ন শক্তি চালাতে পারে ট্রাক

সৃষ্টি বড়ই অদ্ভূত। পৃথিবীজুড়ে এমন অনেক কিছুই রয়েছে, যেগুলি সম্পর্কে ন্যূনতম কোনও ধারণাই আমাদের নেই। বেশি দূরে যেতে হবে না। ‘ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়ে’ দেখা যায় কত সৃষ্টি, কত ঘটনা এদিক-ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে, তাই অনেক সময় আমাদের নজরে আসে না। এমনই বহু অজানা-অচেনার খোঁজে আমাদের যাত্রা।

প্রত্যেকটা মানুষই ১০টা সুপার পাওয়ার নিয়ে জন্মায়। নিজেদের সেই ক্ষমতা সম্পর্কে আমরা নিজেরা অনেকে অবগত নই। গত রবিবার জানানো হয়েছে, মানবশরীর সম্পর্কে অবাক করা ৫টি তথ্য। আর আজ রইল বাকি ৫টা…

১. হৃদযন্ত্রে উৎ‌পন্ন শক্তিতে চলবে ট্রাক:
শুনে অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্যি। একজন মানুষ প্রচুর শক্তির উৎ‌পাদক। মানবদেহের বিশেষত হৃদ‌পিণ্ডে প্রচুর শক্তি উৎ‌পন্ন হয়। এতটাই যে সেই শক্তি দিয়ে একটি ট্রাক ৩২ কিলোমিটার পর্যন্ত চালানো যেতে পারে।

২. কান দিয়ে দেখা:
যদিও এই শক্তি সবার মধ্যে থাকে না। তবে কয়েকজনের শ্রবণশক্তি মারাত্মক প্রখর। বহু দূরের কোনও আওয়াজও তাঁরা এতটাই স্পষ্ট শুনতে পান যে মনে হবে যেন কী ঘটছে তা দেখতে পাচ্ছেন। বিশেষত যাঁরা চোখে দেখতে পান না, তাঁদের যদি ঠিকমতো প্রশিক্ষণ দেওয়া যায়, তবে তাঁদের কানই অনেকাংশে চোখের কাজ করতে সাহায্য করে।

৩. ২ মাস উপবাসের ক্ষমতা:
বিশেষজ্ঞদের দাবি, একজন মানুষ কিছু না খেয়ে ২ মাস পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারেন। একজন স্যুইডিশ ব্যক্তিকে এ ক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবে দেখানো হয়েছে। বরফের নীচে একটি গাড়িতে আটকে পড়া ওই মানুষটি শুধুমাত্র একমুঠো বরফ খেয়েই বেঁচে ছিলেন।

৪. ৫০,০০০ গন্ধ চেনে নাক:
মানবদেহের নাকের ক্ষমতা কুকুরের মতো না হলেও বেশ প্রখর। প্রায় ৫০,০০০ গন্ধ শুঁকে চিহ্নিত করতে পারে নাক।

৫.পাকস্থলীর অ্যাসিড প্রবল ক্ষমতাসম্পন্ন:
শরীরে প্রবেশ করা খাবার হজম করার জন্য আমাদের পাকস্থলীতে যে অ্যাসিড রয়েছে, তা প্রচণ্ড শক্তিশালী। এই অ্যাসিড পাকস্থলীর ওপর একটি আস্তরণ তৈরি করতে সক্ষম। তবে মানবশরীরে বিজ্ঞান অনুযায়ী প্রতি ৩ দিন অন্তর পাকস্থলীর নতুন আস্তরণ তৈরি করে। তা না হলে পাকস্থলীর অ্যাসিড আমাদের পাকস্থলীটাকেই হয়তো হজম করিয়ে দিত!






মন্তব্য চালু নেই