মেইন ম্যেনু

জাপার কো-চেয়ারম্যান হলেন জি এম কাদের

জাতীয় পাটির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দলে তার উত্তরসূরি ঘোষণা করেছেন। তার অবর্তমানে দলের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তার ছোট ভাই জি এম কাদের।

আজ রবিবার রংপুর মহানগরীর সেন্ট্রাল রোডে জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন তিনি।

জি এম কাদেরকে রবিবার থেকে পার্টির কো-চেয়ারম্যান হিসেবেও ঘোষণা দেন এরশাদ। আগামী এপ্রিল মাসে কাউন্সিলের মাধ্যমে সংবিধানে কো-চেয়ারম্যান পদটি সৃষ্টি করা হবে বলে জানান এরশাদ।

সংবাদ সম্মেলনে এরশাদ বলেন, বিশেষ দূতের দায়িত্ব থেকে তাকে অব্যাহতি দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানাবেন। তিনি বলেন, “আমরা কোথায় আছি তা নিজেরাই জানি না। আমিসহ তিন মন্ত্রী উপহার দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রী থেকে কখনোই বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করা যায় না। তাই প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব আমাকে যেন বিশেষ দূতের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন।” এ সময় তিনি অন্য মন্ত্রীদেরও পদত্যাগের আহ্বান জানান।

এরশাদ বলেন, “আমি এখনো শৃঙ্খলিত রাজনীতিবিদ। মুক্তভাবে রাজনীতি করতে পারছি না। জাতীয় পার্টি এখনো সতিক্যার অর্থে প্রকৃত বিরোধী দল হয়ে উঠতে পারেনি। তাই জনগণের কাছে জাপার অবস্থান তুলে ধরতে পারিনি। এ নিয়ে দ্বিধা- দ্বন্দ্ব রয়েছে।”

তার অবর্তমানে দলের হাল ধরার জন্য জি এম কাদেরের নাম ঘেঅষণা করে এরশাদ বলেন, “আমি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান। আমার অবর্তমানে এ দায়িত্ব পালন করবেন জি এম কাদের। এখন থেকে তিনি দলের কো-চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন।” এ সময় তিনি জি এম কাদেরের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, “গেল নির্বাচনে সে আমার কথায় নির্বাচনে অংশ নেয়নি। সে একজন ভালো মানুষ।” আগামী এপ্রিল মাসে কাউন্সিলের জন্য জি এম কাদেরকে আহ্বায়ক ও রুহুল আমীন হাওলাদারকে সদস্যসচিব করারও ঘোষণা দেন এরশাদ।

দলে বিদ্যমান আস্থার সংকট কাটিয়ে উঠতে জি এম কাদেরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে জানিয়ে এরশাদ বলেন, “তিনি সবাইকে নিয়ে দলের ইমেজ ও আস্থা ফিরিয়ে আনবেন।”

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদ্য ঘোষিত কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, সদস্যসচিব আসিফ শাহরিয়ার, মহানগর আহ্বায়ক মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাসহ জাপার নেতারা।






মন্তব্য চালু নেই