মেইন ম্যেনু

জাফরুল্লার বিচারের ইঙ্গিত ডিএমপি কমিশনারের

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় নিহত পুলিশ কর্মকর্তার মরণোত্তর বিচার চাওয়ায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিচারের ইঙ্গিত দিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

১ জুলাই গুলশানের অভিজাত আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালায় কয়েকজন সশস্ত্র জঙ্গি। খবর পেয়ে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাউদ্দীন আহমেদ কয়েকজন পুলিশ সদস্য নিয়ে জিম্মিদের উদ্ধার করতে যান। এ সময় সালাউদ্দিন ও ঢাকা মহানগর পুলিশের সহকারী উপকমিশনার রবিউল করিম জঙ্গিদের গুলিতে নিহত হন।

গত বুধবার রাজধানীতে এক আলোচনায় ওসি সালাউদ্দীনের মরণোত্তর বিচার দাবি করেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তার অভিযোগ, সালাউদ্দীন নানা সময় অনেক নিরীহ মানুষকে অত্যাচার করেছেন। অন্যায়ভাবে ক্রসফায়ারে হত্যা করেছেন।

জাফরুল্লার এই বক্তব্যে নিন্দা জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, জিম্মিদের উদ্ধারের চেষ্টায় পুলিশ কর্মকর্তা নিজের জীবন দিয়েছেন। তার সমালোচনা করা দুঃখজনক। জাফরুল্লার এই অবস্থান উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত এবং এই ধরনের বক্তব্য জঙ্গিবাদকে উস্কে দেবে।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘যারা জঙ্গিবাদকে উস্কে দিতে চায় তাদের ছাড় দেয়া হবে না। দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী তাদের বিচার করা হবে। এছাড়া যারা এমন বক্তব্য দেবেন তাদেরকে অবশ্যই গ্রেপ্তার করা হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন, ডিবি অ্যান্ড প্রসিকিউশন দিদার আহমেদ, কাউন্টার টেরিরজম শাখার প্রধান মনিরুল ইসলাম, উপকমিশনার মাসুদুর রহমান।






মন্তব্য চালু নেই