মেইন ম্যেনু

জামায়াত-ইনু বাদে কনভেনশন চান কাদের সিদ্দিকী

জামায়াত আর হাসানুল হক ইনুর দল জাসদ বাদে বাকি সব রাজনৈতিক দল নিয়ে জাতীয় সম্মেলন (কনভেনশন) চান কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। এই কনভেনশন ডাকতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাইঞ্জে দেশের বিরাজমান পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

‘জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে’ মর্মে প্রধানমন্ত্রীর দাবিকে খারিজ করে দিয়ে তিনি বলেছেন, অনতিবিলম্বে জামায়াত এবং গণবাহিনীর ইনুকে ছাড়া সব রাজনৈতিক দলের একটি কনভেনশন আহ্বান করুন। আপনি যদি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের নেতৃত্বের কথা এখনো মনে করেন, তাহলে ৪০/৪২টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলকেই ডাকতে হবে।

১৪ দলীয় জোটের দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, জাতীয় ঐক্য আপনার ও আপনার ঘরে ঘরে হবে না। যারা বঙ্গবন্ধুর চামড়া দিয়ে জুতা বানাইছে, ডুগডুগি বানাইছে তাদের দিয়ে আপনি ঐক্য করলেও জাতি সেটা করবে না। সেই জন্য আপনার (প্রধানমন্ত্রী) জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে, তা এই সভা থেকে খারিজ করে দিলাম।

তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। আপনার (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) চেয়ে তার ডাক যদি শক্তিশালী হয়, তাহলে পাছে পড়ে গেলে আপনি কিন্তু কাঁদতে পারবেন না। আপনি সত্যিকারের জনগণের বিরোধী দল বিএনপিসহ আমাদের ডাকুন। ’

এ সময় জঙ্গিবিরোধী অভিযানে জঙ্গিদের মেরে ফেলা নিয়ে প্রশ্ন তুলে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘গোপন যাতে প্রকাশ না হয়, সেজন্য জঙ্গিদের মেরে ফেলা হয়।’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন- জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, জাতীয় পার্টির (জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক আসিফ নজরুল, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতিক, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী কায়সার, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি ও মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মেজবাহুর রহমান, সাবেক সাংসদ ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মুহাম্মদ মনসুর, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বীরপ্রতিক, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকী প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই