মেইন ম্যেনু

জার্মানিতে বহু বিবাহ নিষিদ্ধ

জার্মানি বহুবিবাহ এবং কম বয়সের মেয়েদের বিয়ে মেনে নিবে না। বিচারমন্ত্রী মাস এ কথা জানান।

জার্মানির একটি পত্রিকায় তিনি বলেন, ‘যারা এদেশে এসেছেন তাদের কেউ আমাদের আইনের উর্দ্ধে নন। তাদের সংস্কৃতিক মূল্যবোধ কিংবা ধর্মীয় বিশ্বাস যাই হোক না কেন, আমাদের আইন তাদের মেনে চলতে হবে।’

কয়েকটি ইসলামী দেশে একজন পুরুষ সর্বাধিক চার মহিলাকে বিয়ে করতে পারে। কিন্তু জার্মানিতে আইন করে এটি নিষিদ্ধ করা হলো।

কম বয়সের মেয়েদের বিয়েদের বিয়ে এবং বহুবিবাহ নিয়ে জার্মানিতে উদ্বেগ দিন দিন বাড়ছে। প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ করা যায় যে, জার্মনি রেকর্ড সংখ্যক অভিবাসী গ্রহণ করছে। তাদের অনেকেই আসছেন মুসলিমদেশ থেকে।

জার্মানির আইনে পরিস্কার বলা হচ্ছে যে, সম্প্রতি যারা এসেছে তাদের ক্ষেত্রেও এই আইন প্রযোয্য হবে। কেউ একজনের বেশি বিয়ে করতে পারবে না।

কিন্তু পত্রিকাটি বলছে, একের বেশি বিয়ে জার্মানিতে মেনে নেয়া হচ্ছে। এর উদাহরণ দিতে গিয়ে পত্রিকাটি বলছে, কোনো ব্যাক্তি মারা গেলে তার সম্পত্তি দুই স্ত্রীর মধ্যে সমানভাবে ভাগাভগিহয়ে যায়।

কিন্তু মাস চাইছেন এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ নির্লিপ্ত ভূমিকা পালন না করুক।

পত্রিকাটির সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে বিচারমন্ত্রী বলেন, এদেশে বড়ে উঠেছেন, কিংবা মাত্র এদেশে এসেছেন-এটি কোনো বিবেচ্য বিষয় নয়; প্রত্যেককেই এ দেশের আইন চলতে হবে।

জোরপূর্বক বিয়ে যেমন মেনে নেয়া হবে না, তেমনি অল্প বয়সে বিয়েও মেনে নেয়া হবে না বলে বিচারমন্ত্রী জানান।

পত্রিকাটি বলছে, শুধু ব্যাভারিয়া রাজ্যেই রেজিস্ট্র করা ৫৫০ টি বিয়ের ক্ষেত্রে কণের বয়স ১৮ বছরের নিচে। আর সম্প্রতি যারা এ দেশে এসেছে তাদের ১৬১ টি বিয়ের ক্ষেত্রে কণের কণের বয়স ১৬-এর নিচে।

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ১৬ বছরের নিচের বয়সের বিয়ে হয়েছে তাদের এদেশে আসার আগেই।






মন্তব্য চালু নেই