মেইন ম্যেনু

‘জাস্ট ওয়েট, বেরিয়ে আসতেই হবে’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘নির্বাচন করতে হলে সরকার থেকে আমাকে বেরিয়ে আসতে, আমাদের বেরিয়ে আসতেই হবে। জাস্ট ওয়েট।’

সোমবার দুপুরে বনানীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকার জানমালের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।

ব্যর্থতার দায়ভার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের পদ থেকে পদত্যাগ করবেন কি না- জানতে চাইলে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এটি আমার জন্য বিব্রতকর। আমরা বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করছি। ভবিষ্যতেও বিরোধী দল হিসেবে থাকতে চাই।’

জাপা মন্ত্রীদের পদত্যাগ প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, ‘এখনো সময় হয়নি। সময় হলেই আমরা বেরিয়ে আসব। নির্বাচনের এখনো তিন বছর বাকি। আমরা নির্বাচন করব। আর এ অবস্থায় নির্বাচন করা যাবে না। নির্বাচন করতে হলে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে।’

এরশাদ বলেন, ‘এখন আমরা দলীয় কাউন্সিলের প্রস্তুতি নিচ্ছি। জেলা কমিটি করা হচ্ছে। এরপর নির্বাচনের জন্য সারা দেশে প্রার্থী ঠিক করা হবে। তারপর আমরা সরকার থেকে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেব।’

সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘পার্টির চেয়ারম্যানের বিশেষ দূত অর্নামেন্টাল পোস্ট। এর সঙ্গে সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই। সরকারের ব্যর্থতার দায়ভার পার্টির চেয়ারম্যান নেবেন না।’

তিনি আরো বলেন, ‘সরকার সম্মান করে দলের চেয়ারম্যান এরশাদকে বিশেষ দূতের পদে নিয়োগ দিয়েছে। কারণ তার সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিশতী, গোলাম কিবরিয়া টিপু, মেরিনা রহমান এমপি, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, এসএম আবদুল মান্নান, অ্যাডভোকেট আলতাফ আলী এমপি, গোলাম মো. রাজু, নুরুল ইসলাম নুরু, সরদার শাহজাহান, মহিলা পার্টির সেক্রেটারি অনন্যা হোসেন মৌসুমী, পার্টির দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, ছাত্রসমাজের সভাপতি ইফতিখার হাসান, জাতীয় প্রজন্ম পার্টির নাজিম চিশতী।






মন্তব্য চালু নেই