মেইন ম্যেনু

জিডি করতে আর হয়রানি নয়, ডিএমপির ফর্মেই সমাধান

কাগজ আনেন, কলম আনেন, রাইটার দিয়ে লেখে আনেন- থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে গেলে এধরনের বিড়ম্বনায় পড়েননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। উপরন্তু পুলিশকে টাকাও দিতে হয়।

এধরনের সমস্যা ও হয়রানি দূর করতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সহজ একটি ফর্ম তৈরি করেছে। ইতিমধ্যে থানাগুলোতে এসম ফরম সরবরাহ করা হয়েছে।

সোমবার বিকেলে ডিএমপি সদর দপ্তরে কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া থানা কর্মকর্তাদের হাতে এই ফরম তুলে দেন।

এসময় কমিশনার বলেন, থানাগুলোতে নাগরিকরা জিডি সংক্রান্ত প্রয়োজনেই বেশি যান। সেখানে গিয়েই বেশি হয়রানির শিকার হোন। বলা হয়, কাগজ নিয়ে আসেন, কলম নিয়ে আসেন, একশো টাকা দিয়ে রাইটার দিয়ে লিখিয়ে আনেন। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সেজন্যে দুই রঙের জিডি ফরম থানাগুলোতে দেয়া হলো।

তিনি আরও বলেন, ফরমের সাদা অংশটি সেবাপ্রার্থীর কাছে থাকবে, বেগুনি অংশটি থানা সংরক্ষণ করবে। তবে কেউ যদি জিডি লিখে আনেন সেটিও গ্রহণ করা হবে বলে জানান কমিশনার।

ডিএমপি কমিশনার থানাগুলোর ওসিদের (তদন্ত ও অপারেশন) উদ্দেশে বলেন, এ ফরম দেয়ার পরও কোনো সেবাগ্রহীতা যদি থানায় গিয়ে বিড়ম্বনার শিকার হয় সেক্ষেত্রে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসময় তিনি সেবাগ্রহীতাদের উদ্দেশে বলেন, থানায় জিডি করতে গিয়ে কেউ টাকা চাইলে অভিযোগটি সরাসরি আমাদের জানাবেন। আমরা ব্যবস্থা নিব।

নতুন ধরনের এসব জিডি বুক দেয়ার আগে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন ডিএমডিপর যুগ্ম কিশিনার (অপরাধ) কৃষ্ণ পদ রায়।

এসময় তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে যে থানাগুলোতে বেশি জিডি হয় সেগুলোতে ৪০টি করে বই দেয়া হচ্ছে। সংখ্যায় যেগুলোতে কম হয় সেখানে ৩৫টি করে দেয়া হচ্ছে। এর প্রত্যেকটি বইতে ১০০টি করে জিডি ফরম রয়েছে। প্রতিটি বইয়ের সঙ্গে একটি করে কমল সরবরাহ করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই