মেইন ম্যেনু

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট নাকি টি-টোয়েন্টি?

বিপিএলের ঝলমলে আলো নিভে যাওয়ার পর ফোকাস জাতীয় দলের ওপর। সামনে এশিয়া কাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার আগে জানুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা টাইগারদের। বিসিবির অন্দরমহলের খবর, টেস্ট সিরিজ নাও হতে পারে। তার পরিবর্তে টি-টোয়েন্টি খেলতে পারে দুই দেশ।

বিপিএলের আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ এবং দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে ফেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে ওডিআইতে ৩-০ ব্যবধানে জয়লাভ করে মাশরাফিরা। আর টি-টোয়েন্টি শেষ হয় ১-১ সমতায়। জিম্বাবুয়ের মূলত ওই সফরটি জানুয়ারিতেই করার কথা ছিল। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া নভেম্বরে বাংলাদেশে না আসায় জিম্বাবুয়েকে আগেভাগে বাংলাদেশে আনে বিসিবি। শর্তমতে, নির্ধারিত টেস্ট সিরিজ হওয়ার কথা জানুয়ারিতে।

কিন্তু বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, ওই টেস্ট সিরিজের পরিবর্তে এখন টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজন করা হতে পারে। কেননা এবার প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপ হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। তার পর আবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ রয়েছে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এ বিষয়ে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে একটা আলোচনা চলছে। তবে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। বলতে পারেন একদম প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে এই আলোচনা।’

এশিয়া কাপ, বিশ্বকাপের আগে জিম্বাবুয়ে টি-টোয়েন্টি খেলতে রাজি না হলেও অন্য যেকোনো দেশের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি খেলতে চায় বাংলাদেশ।

সূত্র জানায়, দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের বদলে তিন অথবা পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি হতে পারে।

প্রধান নির্বাচক ফারুখ আহমেদও বললেন এই সম্ভাবনার কথা, ‘আমি শুনেছি টি-টোয়েন্টি হতে পারে। তবে কিছুই নিশ্চিত করা হয়নি।’

এদিকে বিসিবির একাংশ আবার এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন। কেউ কেউ বলছেন, টেস্ট বাতিল করা ঠিক হবে না। যে কোনো ফরম্যাটের প্রস্তুতির জন্য টেস্ট আদর্শ।

‘জিম্বাবুয়ের মতো দলের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি খেলে লাভ হবে না। বাংলাদেশ টেস্ট খেলার সুযোগ পায় কালেভদ্রে। যদি টেস্ট বাতিল করা হয়, তবে সেটা পাগলের মতো সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’ নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন এক বিসিবি কর্তা।






মন্তব্য চালু নেই