মেইন ম্যেনু

জিম্মিদের মুক্তির অভিযান পরিচালিত হবে কিভাবে?

জিম্মিদের উদ্ধারে দেশের সকল আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এখন রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টের আশেপাশে অবস্থান নিয়েছেন।

সেনাবাহিনী, র‌্যাব, বিজিবি, ডিবি, সোয়াত, সিআইডি, ফায়ার বিগ্রেড ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নিলেও কিভাবে অভিযান পরিচালিত হবে সে সম্পর্কে এখনও সুনির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা পাননি বলে জানা গেছে।

জিম্মি আটকের ঘটনার পর দৃর্বৃত্তদের গুলিতে পুলিশের সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলাম ও বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাউদ্দিন আহমেদ নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

এখনও পর্যন্ত দেশি-বিদেশি দুই ডজনেরও বেশি নাগরিক সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি হয়ে আছেন।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত রাতে ওই রেস্টুরেন্টে দেশের বিভিন্ন খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীদের সন্তানদের পার্টি চলছিল। ঘটনার পর ছয় ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত অভিযানটি কিভাবে পরিচালিত হবে সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না।

শুক্রবার রাতে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে র্যাব মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ বলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধান চান। তারা আগে জিম্মিকারীরা কি চান তা জানতে চান।

জানা গেছে, পুলিশের মহাপরিদর্শক শহীদুল হকসহ শীর্ষ কর্মকর্তারা বৈঠকে বসে কিভাবে সমস্যার সমাধান করা যায় তা নির্ধারণ করছেন।

বিমানবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই