মেইন ম্যেনু

‘জীবন মানে উপভোগ, ক্রিকেট মানে ভালো লাগা’

‘মাশরাফি হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশ। বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে মাশরাফি। মাশরাফি উঠে দাঁড়িয়েছেন বারবার। বারবার উড়িয়েছেন বাংলাদেশের পতাকা।’- সোমবার মাশরাফির বই ‘মাশরাফি’ এর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মাশরাফি বিন মুর্তজাকে এভাবেই পরিচয় করিয়ে দেওয়া হচ্ছিল।

দু’পায়ে সাতটি অপারেশন করার পরও বাইশ গজের ক্রিকেটে এখনো ১৩০-৪০ গতিতে বল করে যাচ্ছেন নড়াইল এক্সপ্রেস। বারবার ইনজুরিতে পরেও দমে যাননি বাংলাদশের সীমিত পরিসরের অধিনায়ক। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সাফল্যমন্ডিত অধ্যায় এসেছে মাশরাফির হাত ধরেই।

সেই মাশরাফির কাছে জীবন কী বা ক্রিকেটই বা তার কাছে কী? তা জানার আগ্রহ সবারই। বাংলাদেশ ক্রিকেটের জীবন্ত নক্ষত্রের কাছে জানতে চাওয়া হয় তার কাছে জীবন কী? দার্শনিকের মত কোনো কথা না বলে সোজাসাপ্টা উত্তর, ‘জীবন মানে আমার কাছে উপভোগ করা। এখন উপভোগ কে কেমন করে সেটা তার উপর নির্ভর করে। যদি বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট চিন্তা করি তাহলে আমি বলবো আমাদের সামাজিকতা রক্ষা করে উপভোগ করাই হচ্ছে জীবন। জীবন মানে ক্রিকেট খেলা না। ক্যারিয়ারে কত উইকেট পেলেন কত রান করলেন সেটাও না। জীবনের একটি পর্যায়ে গিয়ে এগুলো কিছুই থাকবে না। জীবন এটাই যে আপনি কাউকে ভালোভাসছেন, কেউ আপনাকে ভালোভাসছে।এটাই তো ..।’

ক্রিকেটার না হলে মাশরাফিকে কেউ চিনত? এ সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি। কিন্তু ক্রিকেটার পরিচয় বহন করা মাশরাফির জীবনে ক্রিকেট কি তা প্রশ্নই থেকে যায়। সে প্রশ্নের উত্তর দিলেন মাশাফি নিজেই। বাকিটা শুনুন তার মুখ থেকেই, ‘ক্রিকেটটা আমার কাছে ‘ভালো লাগা’ বলবো। যখন খেলা শুরু করি তখন তো সব খেলাই খেলতাম। কিন্তু যখন পেশাদার ক্রিকেট খেলা শুরু করি তখন থেকেই ক্রিকেট আমার কাছে ভালোলাগা ও ভালোবাসার জিনিস হয়ে উঠে।’






মন্তব্য চালু নেই