মেইন ম্যেনু

জীবিত মানুষের ময়নাতদন্ত, পরে চিকিৎসা!

মৃত ঘোষণা করে হাসপাতাল মর্গে অন্য মৃতদেহের সাথে ফেলে রাখা হয় তার লাশ। এরপর টানা কয়েক ঘণ্টা সেখানেই পড়ে ছিল তার দেহ। কোনো সাড়া শব্দ নাই। পরে লাশ ময়নাতদন্তে নেওয়া হলে ঘটে চাঞ্চল্যকর ঘটনা। টনক নড়ে চিকিৎসকদেরও।

কারণ, মৃতদের দেহের মতোই কাটা-ছেড়া করতে গিয়ে জানা গেল লোকটি আসলে বেঁচে আছেন। এ ঘটনার পর কে ঠিক থাকতে পারে?

এমন ঘটনাই ঘটেছে প্রতিবেশী ভারতের ঝাড়খন্ডে। রাজ্যের বাঁশবেড়িয়ার গ্যাঞ্জেস জুটমিলের কর্মী প্রকাশ রেড্ডি। গত রোববার গিয়েছিলেন দেওঘরের বৈদ্যনাথ ধামে। সোমবার মন্দিরে ঢোকার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার সময় হুড়োহুড়িতে পদপিষ্ট হন তিনি।

সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়েছিলেন মৃতদেহের সঙ্গেই। মৃত ভেবে প্রকাশকেও পাঠিয়ে দেওয়া হয় হাসপাতালের মর্গে। মর্গে কেটে যায় বেশ কয়েক ঘণ্টা।

এরপর ময়নাতদন্তের সময় বেঁচে থাকার বিষয়ে বুঝতে পারেন স্বাস্থ্যকর্মকর্তারা। নিশ্চিত হতে ডেকে পাঠানো হয় চিকিৎসকদের। তারাও জানান প্রকাশ বেঁচে আছেন। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে তাকে পাঠিয়ে দেন হাসপাতালের জেনারেল ওয়ার্ডে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় সেখানকার দেওঘরের হাসপাতালের বিছানায় বেশ কয়েকদিন কাটে প্রকাশের। অবস্থার কিছুটা উন্নতির পর তাকে নেয়া হয় ব্যান্ডেলের ইএসআই হাসপাতালে। সেখানেই এখন চিকিৎসাধীন আছেন তিনি। সূত্র: জি নিউজ






মন্তব্য চালু নেই