মেইন ম্যেনু

জেনে নিন কী ভাবে পরিষ্কার রাখবেন টুথব্রাশ, নেল কাটার, রেজার

টুথব্রাশ, চিরুনি, রেজার রোজই ব্যবহার করছেন। করার পর নিজেকে বেশ ফ্রেশ লাগছে। কিন্তু অতি প্রয়োজনীয় ব্যবহারের জিনিসগুলো ফ্রেশ রাখছেন তো? ভাবছেন ধুয়েই তো রাখি সব সময়। জানেন কি জল দিয়ে ধুয়ে রাখলেও সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত রাখা যায় না এই সব নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস? বরং ভেজা ব্রাশ, ব্লেড থেকে ছড়াতে পারে সংক্রমণ। তাই শুধু শুকিয়ে রাখাই নয়, নিয়মিত পরিষ্কার করা ও বদলানোও প্রয়োজন। জেনে নিন কী ভাবে করবেন।

টুথব্রাশ: প্রতি ৩-৪ মাস অন্তর টুথব্রাশ বদলান। ব্রিসল ক্যাপ লাগিয়ে রাখুন। পরিবারে সবাই এক সঙ্গে ব্রাশ না রেখে আলাদা আলাদা রাখতে পারলে ভাল। এতে এক ব্রাশ থেকে অন্য ব্রাশে জীবাণু সংক্রমণ হতে পারে।

লুফা: স্নানের সময় লুফা নিয়মিত পরিষ্কার না করলে সংক্রমণ হতে পারে। লুফা পরিষ্কার করলেও ভিতরে অনেক সময় জীবাণু থেকে যেতে পারে।
তাই লুফা ব্যবহার না করে পাতলা কাপড় দিয়ে শরীর স্ক্রাব করুন। ওয়াশিং মেশিনে কাচার সময় তাপমাত্রায় জীবাণু মরে যাবে।

রেজর: শেভ করার পর জল দিয়ে ধুয়ে, অ্যালকোহল দিয়ে মুছে, টিস্যু দিয়ে পরিষ্কার করে রাখুন রেজর ব্লেড। প্রত্যেক ২ সপ্তাহ অন্তর বা ৫-১০ বার ব্যবহারের পর বদল করুন।

চিরুনি: চুলের অনেক ময়লা চিরুনিতে লেগে থাকে। সপ্তাহে এক দিন গরম জলে কয়েক ফোঁটা শ্যাম্পু ফেলে চিরুনি পরিষ্কার করুন। সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত করতে চাইলে আধ কাপ গরম জলে আধ কাপ ভিনিগার দিয়ে ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন চিরুনি।

মেক আপ ব্রাশ: মাস্কারা প্রতি তিন মাস অন্তর বদলান। বাকি মেক আপ ব্রাশের ক্ষেত্রে ২ সপ্তাহ অন্তর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে শুকনো করে মুছে রাখুন।

নেল কাটার: নখ কাটার আগে নেল কাটার বা ক্লিপার অ্যালকোহলে ডুবিয়ে রেখে পরিষ্কার টিস্যু দিয়ে মুছে নিন।






মন্তব্য চালু নেই