মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, কোন মেয়ে প্রেমিকা হিসেব কেমন?

রাশি কেউ মানেন কেউ মানেন না। যারা রাশি মানেন না, তাদের জন্য হয় তো এ লেখাটি নয়। কিন্তু যারা মানেন, তার বিশ্বাস রাখতে পারেন এই লেখার সমস্ত বয়ানের উপর। কেন না, এ তথ্য দিয়েছেন জ্যোতিষিরা। সুতরাং ভুল হবে! সে ভাবনাটা আপতত না ভেবে চট করে পড়ে নিন। আর মিলিয়ে নিন আপনার প্রেমিকার সাথে।

এর আগে একটা কথা মনে রাখবেন সব কিছুতেই সব রাশির আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য থাকে। তাতেই বোঝা যায় প্রেমের ব্যাপারে কোন রাশির মেয়েরা কেমন হয়! তাহলে আসুন জেনে নিই কোন রাশিরা মেয়েরা প্রেমের জন্য কেমন?

মেষ (২১ মার্চ – ২০ এপ্রিল) : মেষ নারীর প্রেম সব সময়েই উষ্ণ। মেষের উপাদনই হল আগুন। প্রেমের ক্ষেত্রে মেষ নারী নিজেই উদ্যোগ নিতে পারে কিন্তু তার সঙ্গীকেও হতে হয় শক্তিশালী ব্যক্তিত্বের। সঙ্গী দুর্বল হলে খুব দ্রুত আগ্রহ হারিয়ে ফেলে।

বৃষ (২১ এপ্রিল – ২১ মে) : বৃষ নারী বিচক্ষণ ও ধৈর্যশীল। বৃষের উপাদান হল মৃত্তিকা। তাই মাতৃসুলভ বৈশিষ্ট্য দেখা যায়। ভালবাসার ক্ষেত্রে ধীরস্থির এবং মিষ্টিভাব পছন্দের। উগ্রতা নয়। কিছু সীমানা মেনে চলেন।

মিথুন (২২ মে – ২১ জুন) : মিথুন রাশির জাতিকার মধ্যে একাধিক সত্ত্বা দেখা যায়। ব্যক্তিত্ব অনেক সময়ে অস্থিতিশীল মনে হতে পারে। প্রেমের ক্ষেত্রে একটু খুঁতখুঁতে। তবে নিজের পছন্দের ব্যক্তিকে খুঁজে পেলে তখন আর কোনও সংকোচ রাখে না।

কর্কট (২২ জুন – ২২ জুলাই) : কর্কট রাশির নারীর অনুমানশক্তি খুব প্রখর হয়। প্রেমের ব্যাপারে কর্কট নারীকে একটু সময় দিতে হয়। হুট করে প্রেমে জড়িয়ে পড়তে নারাজ। সঙ্গীকে তারা বিশ্বাস করতেও সময় নেন।

সিংহ (২৩ জুলাই – ২৩ অগস্ট) : প্রেমের ক্ষেত্রে সিংহ রাশির নারী কোনও ছাড় দিতে রাজি হন না। খুশি করতে পারলে সম্পর্ক হয়ে উঠতে পারে একেবারে গল্পের মতো রোমান্টিক। সঙ্গীর জীবনে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হতে চায়। সঙ্গীকে প্রাপ্য সম্মান দিতেও জানে।

কন্যা (২৪ আগস্ট – ২৩ সেপ্টেম্বর) : কন্যা রাশির জাতিকারা প্রকৃতির কাছাকাছি থাকতে ভালবাসে। প্রকৃত ও দীর্ঘস্থায়ী ভালবাসায় বিশ্বাসী। সহজে প্রেমে পড়েও না। কিন্তু একবার প্রেমে পড়লে সেই সম্পর্ককে করে তোলেন দীর্ঘস্থায়ী।

তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর – ২৩ অক্টোবর) : তুলা নারীর প্রতি অন্যদের আকর্ষণ থাকে প্রবল। একই সঙ্গে যৌক্তিক বিবেচনা এবং অযৌক্তিক আবেগ থাকে। প্রেমের ব্যাপারে আবেগ প্রাধান্য পায়। সেক্ষেত্রে যুক্তি দিয়ে কোনও কাজ হয় না। আবেগের মুল্য দিতেও জানে।

বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর – ২২ নভেম্বর) : সোজাসাপটা আচরণ পছন্দ করে। পরিস্থিতি নিজের নিয়ন্ত্রনে রাখতে পছন্দ করে। অনেক ক্ষেত্রে এই রাশির মেয়েদের মনের ভিতরটা বেশ জটিল হয়। সঙ্গীর ব্যাপারে খুবই পজেসিভ। ভাগ করে নেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

ধনু (২৩ নভেম্বর – ২১ ডিসেম্বর) : ধনু রাশির জাতিকাদের মধ্যে স্বতঃস্ফূর্ত ও স্বাধীনচেতা মনোভাব দেখা যায়। গভীর ব্যক্তিত্ব অনেকের কাছেই আকর্ষণীয়। কোনও বাঁধাধরা নিয়মের বেড়াজালে আটকে রাখা মুশকিল। প্রেম নিয়ে এরা খুবই খুঁতখুঁতে।

মকর (২২ ডিসেম্বর – ২০ জানুয়ারি) : মকর রাশির জাতিকা ঠান্ডা মাথায় প্রতিযোগীকে হারিয়ে দেয়। প্রেমের ব্যাপারেও তাই। ইচ্ছেপূরণের বিরোধিতা সহ্য করে না। কখনও কখনও মকর রাশির নারী একগুঁয়ে হয়।

কুম্ভ (২১ জানুয়ারি – ১৮ ফেব্রুয়ারি) : কুম্ভ রাশির নারী অন্যের অযাচিত উপদেশ শুনতে পছন্দ করে না। প্রেমের ব্যাপারেও নিজের মতকেই প্রাধান্য দেয়। তবে যাকে পছন্দ হয়ে যায় তার জন্য জীবন পর্যন্ত পণ করতে পারে।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি – ২০ মার্চ) : মীন রাশির জাতিকারা প্রাণবন্ত, রোমান্টিক, স্পর্শকাতর। কঠিন বাস্তবের মাটিতে দাঁড়িয়েও মীন রাশির নারী কল্পনার জগতে হারিয়ে যেতে পারেন। সঙ্গীকেও বুঝতে দেন না মনের কথা। দুঃখকেও আড়াল করে রাখতে পারেন।






মন্তব্য চালু নেই