মেইন ম্যেনু

জেনে নিন চাকরি ছাড়ার আগে যা ভাববেন

অনেক দিন ধরে কাজ করছেন একটি অফিসে। আপনার দায়িত্বও ছোটখাটো নয়। আপনার উপর নির্ভর করে প্রতিষ্ঠানের ভালো-মন্দ। অথচ আপনি হুট করেই চাকরি ছেড়ে দিলেন। বেকায়দায় পড়লো প্রতিষ্ঠানটি। যা কোনো ভাবেই কাম্য নয়। তাই চাকরি ছাড়ার আগে কিছু বিষয় ভাবা উচিত। হুটহাট সিদ্ধান্তে চাকরি পরিবর্তন শুধু কর্মস্থলের জন্য ক্ষতিকর নয়, নিজের জন্যও ক্ষতিকর।

হার্ভার্ড বিজনেস রিভিউয়ের তথ্যমতে, যেসব কর্মী হুটহাট সিদ্ধান্তে চাকরি ছাড়েন, তারা সারা জীবনে সর্বোচ্চ পাঁচ থেকে ছয়বার কর্মস্থল বদলাতে পারেন। তাদের নামে অফিসে ঊর্ধ্বতনদের সন্দেহের মাত্রা একটু বেশিই থাকে। অতএব, চাকরি ছাড়ার আগে কিছু বিষয় নিজের জন্য আর পুরোনো অফিসের জন্য ভাবা উচিত। তাই জেনে নিন চাকরি ছাড়ার আগে করণীয় কী?

চাকরি ছাড়ার আগে যা ভাববেন
• চাকরি ছাড়ার কয়েক দিন আগে মানবসম্পদ বিভাগকে অবহিত করুন। তাহলে মানবসম্পদ বিভাগ নতুন কর্মী নেয়াসহ আপনার প্রাপ্য বেতন-বোনাসের হিসাব করার সুযোগ পাবে।
• আপনার অর্জিত ছুটি আর বেতন-বোনাস-সংক্রান্ত বিষয়গুলো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আর মানবসম্পদ বিভাগকে অবহিত করুন।
• অফিসের বিল-বকেয়া কিংবা ছোটখাটো সব আর্থিক হিসাব মিটিয়ে ফেলুন।
• অফিসের ক্যামেরা, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, গাড়ি বা অন্যান্য যন্ত্রপাতি নির্দিষ্ট কর্মকর্তাকে বুঝিয়ে লিখিত ছাড়পত্র নিয়ে নিন।
• অব্যাহতিপত্র আর অভিজ্ঞতার সনদ মানবসম্পদ বিভাগ থেকে নিতে ভুলবেন না।
• কম্পিউটার থেকে আপনার ব্যক্তিগত তথ্যাদি ও ফাইল মুছে ফেলুন। অন্য ফাইলসমূহ দায়িত্বশীল কর্মকর্তাকে বুঝিয়ে দিন।
• ব্যক্তিগত বই, ছবির ফ্রেম, অ্যাকুরিয়াম কিংবা শখের কলমদানি, মগ, গ্লাস সরিয়ে ফেলুন। অফিসের লাইব্রেরি থেকে বই নিলে তা ফেরত দিন।
• চাকরি ছাড়ার পূর্ব পর্যন্ত অফিসের নিয়মকানুনকে শ্রদ্ধা করুন। পুরনো কর্মস্থলে অসৌজন্য ও বিশৃঙ্খল আচরণ করবেন না।
• সহকর্মীদের সঙ্গে পুরনো রাগ-অভিমান কাটিয়ে ফেলার চেষ্টা করুন। পুরনো সহকর্মীদের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করুন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই