মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, দইয়ের যত গুণ

কেবল ভোজনরসিকদের কাছেই নয়, স্বাস্থ্যসচেতন যে কারো কাছেই দই পছন্দের খাবার। দই হাড় মজবুত করে, উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া সুস্বাদু এই খাবারটির রয়েছে বহু পুষ্টিগুণ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে দইয়ের কিছু স্বাস্থ্যকর গুণের কথা।

১. স্বাস্থ্যকর হাড় গঠনে

এক বাটি দই আপনার শরীরে ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন ডির চাহিদা জোগাবে। এই উপাদান দুটি হাড়ের জন্য স্বাস্থ্যকর। দইয়ের মধ্যে উপস্থিত ক্যালসিয়াম হাড়কে মজবুত করে; এটি হাড়ের রোগ অস্টিওপরোসিস প্রতিরোধে সাহায্য করে।

২. হজমে উপকারী

দইয়ের মধ্যে প্রোবায়োটিক উপাদান রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে উপকারী ব্যাকটেরিয়া; যা হজম সহজ করে। এ ছাড়া যেসব ক্ষতিকর বিষয়ের কারণে হজমে সমস্যা হয়, সেগুলোও দূর করে। এই প্রোবায়োটিক উপাদান হজম এবং রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

৩. উচ্চ রক্তচাপ কমায়

দইয়ের মধ্যে কেবল ক্যালসিয়ামই নয়, উচ্চ পরিমাণ পটাশিয়ামও রয়েছে। এটি উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।

৪. ত্বকের জন্য ভালো

ত্বক পরিষ্কার ও মসৃণ হতে সাহায্য করে দই। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। দইকে মুখের প্যাক হিসেবেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

৫.পুষ্টিগুণে ভরপুর

দইয়ে রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। যেমন : পটাশিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন বি৫, জিংক, আয়োডিন এবং রিবোফ্লাভিন। এ ছাড়া এর মধ্যে আছে ভিটামিন বি১২; যা রক্তে লোহিত কণিকা ভালো রাখে। এটি স্নায়ু পদ্ধতি ভালো রাখতেও কার্যকর।

৬. রোগ প্রতিরোধক্ষমতা

প্রতিদিন দই খেলে রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ে। এর মধ্যে থাকা প্রোবায়োটিক উপাদান ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করে। এ ছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য, কোলন ক্যানসার এবং পেটের সমস্যা কমাতেও সাহায্য করে দই।

৭. ওজন কমায়

ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব ওবেসিটির ২০০৫-এর একটি গবেষণায় বলা হয়, দই শরীরের মেদ ঝরাতে বেশ কার্যকর।






মন্তব্য চালু নেই