মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, পৃথিবীর সবচেয়ে ভাগ্যবান ব্যক্তি সম্পর্কে

যুবক বয়সে তিনি বজ্রপাতের শিকার হয়েও বেঁচে গেছেন। পরে নিজের মেয়েও বেঁচে গেছেন বজ্রপাত থেকে। আর পরিণত বয়সে জিতেছেন ১০ লাখ মার্কিন ডলারের লটারি। তাঁকে কী বিশ্বের সবচেয়ে ভাগ্যবান ব্যক্তি বলা যায় না! ব্যক্তিটি হলেন কানাডার পিটার ম্যাকাথি।

বিজ্ঞানীয়দের মতে, বজ্রপাতের শিকার হওয়ার পরও বেঁচে যাওয়ার হার প্রতি দুই লাখ ৬০ হাজার কোটিতে একজন। ১৪ বছর বয়সে বজ্রপাতের শিকার হন পিটার ম্যাকাথি। আর বিস্ময়কর বিষয় হলো ম্যাকাথির মেয়েও বজ্রপাতের শিকার হন এবং প্রাণে বেঁচে যান।

ম্যাকাথির পরের সৌভাগ্যটি এসেছে পরিণত বয়সে। কানাডার ছোট এলাকা আমহাস্ট শোর কাউন্টিতে একটি দোকান আছে তাঁর। সেখানেই এক কর্মীর সঙ্গে যৌথভাবে লটারি টিকেট কিনেছিলেন তিনি । চলতি মাসেই ওই লটারিতে ১০ লাখ মার্কিন ডলার জিতেছেন তাঁরা।

লটারিতে কয়েক লাখ ডলার জেতার পর ম্যাকাথি মজা করে বলেন, ‘আমি এর আগে আরেকবার বজ্রপাত আশা করি।’

বজ্রপাতে আহত হওয়ার স্মৃতি স্মরণ করে ম্যাকাথি বলেন, ‘দিনটি ছিল রৌদ্রোজ্জ্বল, শুধু সাদা একটু মেঘ আকাশে ছিল। আমি নৌকা বাঁধার চেষ্টা করছিলাম। এমন সময় বজ্রপাত হলো। গাছের ওপর দিয়ে আসা ওই বজ্র আমার ওপর আঘাত হানল।’

একই ব্যক্তির জীবনে তিনবার এমন বড় ঘটনাকে অনেকেই অসম্ভব বলেই মনে করেন। কানাডার ইউনিভার্সিট অব মন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক সোফি লেগার এবিসিকে বলেন, একই মানুষের জীবনে এতবার সৌভাগ্য আসা সত্যিই বিস্ময়কর। তবে এটি এও প্রমাণ করে মানুষের জীবনে যেকোনো কিছু ঘটতে পারে।

পিটার ম্যাকাথি জানান, তিনি কাজকর্ম থেকে কয়েকদিন ছুটি নেবেন। আর নিজের শখের রান্না ও মাছ ধরার কাজ করবেন।






মন্তব্য চালু নেই