মেইন ম্যেনু

জেনে নিন ব্রোকলির স্বাস্থ্য উপকারিতা

ব্রোকলি একটি বলিষ্ঠ ও সুস্বাদু সবজি হিসেবেই সুপরিচিত যা কয়েক ডজন পুষ্টি উপাদানে সমৃদ্ধ। অন্য যে কোন সবজির চেয়ে বেশি পুষ্টিতে ভরপুর থাকে ব্রোকলি। চলুন জেনে নেয়া যাক ব্রোকলির অপরিসীম স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলো কী কী সে সম্পর্কে।

১। ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

ক্রুসিফেরি পরিবারের অন্যান্য সবজি যেমন- ফুলকপি ও বাঁধাকপির মত ব্রোকলিতেও ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার উপাদান আছে।

২। কোলেস্টেরল কমায়

ব্রোকলি দ্রবণীয় ফাইবারে পরিপূর্ণ বলে শরীর থেকে কোলেস্টেরল বাহির হয়ে যেতে সাহায্য করে।

৩। অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়া ও প্রদাহ কমায়

গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে ক্যাম্ফেরল শরীরের অ্যালার্জির সাথে সম্পর্কিত পদার্থ কমাতে সাহায্য করে। ব্রোকলিতে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড থাকে যা অ্যান্টিইনফ্লামেটরি কাজের জন্য সুপরিচিত।

৪। শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট

ব্রোকলিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে এবং এতে ফ্ল্যাভোনয়েড ও থাকে যা ভিটামিন সি কে ব্যবহারের জন্য উপযোগী করে তুলে। এছাড়াও আরো কিছু শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেমন- ক্যারোটিনয়েড লুটেইন, জিজান্থিন এবং বিটা ক্যারোটিন ও প্রচুর পরিমাণে থাকে ব্রোকলিতে।

৫। হাড়ের জন্য উপকারী

ব্রোকলিতে উচ্চমাত্রার ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন কে থাকে। এই উভয় উপাদানই হাড়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং অষ্টিওপোরোসিস প্রতিরোধেও সাহায্য করে।

৬। হার্টের জন্য উপকারী

সালফোরাফেন নামক প্রদাহনাশক উপাদান ব্রোকলিতে থাকে যা এক ধরণের আইসোথায়োসায়ানেট (ITCs)। রক্তে দীর্ঘমেয়াদী চিনির সমস্যার কারণে যে প্রদাহ হয় তার কারণে রক্তনালীর ক্ষতি হয়। রক্তনালীর এই ধরণের ক্ষতি প্রতিরোধ করতে পারে সালফোরাফেন।

৭। হজম সহায়ক

ব্রোকলি একটি ভালোমানের শর্করা এবং এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবারও থাকে যা হজমে সাহায্য করে, কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে, রক্তের চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এবং অধিকখাওয়ার অভ্যাস দমন করে।

৮। ক্যালরি কম থাকে

এক কাপ ব্রোকলিতে ১ কাপ ভাত বা ১ কাপ ভুট্টার মতোই প্রোটিন থাকে এবং এদের তুলনায় ব্রোকলিতে ক্যালরির পরিমাণ কম থাকে।

সতর্কতা :
ব্রোকলিতে গয়ট্রোজেন থাকে যা থাইরয়েড গ্ল্যান্ডের কাজে হস্তক্ষেপ করে। স্বাস্থ্যবান মানুষের জন্য ব্রোকলি খাওয়ায় কোন সমস্যা নেই। কিন্তু যাদের থাইরয়েডের সমস্যা তাদেরকে কম খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। গয়ট্রোজেনিক উপাদান রান্না করলে নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়। তাই অন্যান্য ক্রুসিফেরি সবজির মত ব্রোকলি ভাল করে সিদ্ধ করে খান।






মন্তব্য চালু নেই