মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, ভাইয়ের সাথে বেড়ে উঠা মেয়েরা হন দৃঢ় মানসিকতার অধিকারী কেন?

ভাইবোনের বন্ধন অনেক দৃঢ় একটি বন্ধন। যদিও একটা সময় পর্যন্ত ভাইবোনের খুনসুটি লেগেই থাকে এবং মনে হয় ভাই না থেকে একটি বোন থাকলে অনেক ভালো হতো। কিন্তু একজন মেয়ের নিজের মানসিক দৃঢ়তা বাড়াতে সবচাইতে বেশি সাহায্য করেন তার ভাইটি। ছোটো হোক বা বড় ভাই হোক না কেন তার ভাইয়ের মাধ্যমেই মেয়েটি অনেক বেশি মানসিকভাবে শক্তিশালী হয়ে উঠেন। জানতে চান কীভাবে?

* ছোটবেলা থেকেই শিখে যাবেন ছেলেদের পছন্দ অপছন্দ এবং তাদের সাথে কীভাবে কী করলে তারা খুশি হয় এমন সবকিছু। এমনকি ছেলেদের সম্পর্কের খুঁটিনাটি তথ্যও পেয়ে যাবেন ভাইয়ের মাধ্যমেই।

* ভাইয়ের সাথে বেড়ে উঠলে আপনি শিখতে পারবেন কীভাবে ধৈর্য ধারণ করে থাকা যায়। যখন ভাইটি আপনাকে জ্বালাতন করবেন তখন তা সহ্য করতে করতে ধৈর্য ধারণ ক্ষমতাও বেড়ে যাবে।

* মেয়েরা ভাইয়ের সাথে বেড়ে উঠলে একটি ব্যাপার বুঝে উঠতে শিখে যাবেন, তা হলো ‘কান্নাকাটি করে সব কিছু পাওয়া যায় না’।

* নিজের প্রেমিক বা স্বামী খোঁজার ব্যাপারে আপনি বুঝে যাবেন কোন ধরণের ছেলে আপনার জন্য জরুরী, এবং তা অবশ্যই আপনার ভাইয়ের কল্যাণেই।

* বোন থাকলে অনেক সময়েই একেঅপরের জন্য কম্প্রোমাইজ করা শিখে ফেলেন কিন্তু ভাইয়েরা থাকলে কম্প্রোমাইজ সহ আরও একটি ব্যাপার শেখা যায়, তা হলো যুদ্ধ করে কীভাবে নিজের জিনিস আঁকড়ে ধরে রাখা যায়। এতে করে, ভাইয়ের সাথে বেড়ে উঠলে দৃঢ় মানসিকতা তৈরি হয়।

* যখনই কোনো সমস্যায় পড়ে যাবেন আপনি খুব ভালো করেই জানেন কাকে বললে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। ভাইটি আপনার চাইতে ছোটো হোন বা বড় হোন না কেন তিনিই তখন আপনার উদ্ধারকর্তা।

* ভাইটিকে দেখতে দেখতেই বুঝে যাবেন একজন ভালো মানুষের মধ্যে কোন গুণাবলী থাকে।

* নিজের ভাইটিকে যদি সেখাতে পারেন কীভাবে একজন নারীকে সম্মান করতে হয় তাহলে নিজের সম্মানটুকু অনেক বেশি করেই পাবেন।

* মেয়েরা সাধারণত নিজের প্রয়োজনটা মুখে বলেন না। কিন্তু ভাইয়ের কাছ থেকে নিজের প্রয়োজনটা কীভাবে প্রকাশ করতে হয় এবং তার পাশাপাশি কীভাবে আদায় করে নিতে হয় তাও শিখে যাবেন।

* সব চাইতে ভালো বিষয়টি হচ্ছে ছেলেদের আপনি অনেক ভালো করে চিনতে পারবেন এবং খুব ভালো করেই জেনে যাবেন তারা কোন কোন ব্যাপারে আগ্রহী এবং আবেগি হয়ে যান।






মন্তব্য চালু নেই