মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, ভালো তরমুজ চেনার উপায়

চলছে ঠা ঠা গরমের দিন। গরমে শরীর ঠান্ডা রাখতে তরমুজের জুড়ি নেই। এই ফলে শতকরা প্রায় ৯২ ভাগ পানি আছে। তরমুজ খেলে সহজেই পানির তৃষ্ণা মেটে। এছাড়া তরমুজের আরো অনেক উপকারিতা রয়েছে। বলা যায়, আকার-আকৃতিতে তরমুজ যেমন বড়, তেমনি গুণের ভান্ডারও সমৃদ্ধ। তাই গরমে ফল হিসেবে সকলেরই পছন্দ তরমুজ।

কিন্তু তরমুজ কেনার সময় অনেকে যে বিপত্তিতে পড়েন, তা হচ্ছে ভালো তরমুজ চিনতে পারেন না। ভালো তরমুজ চেনায় ভুল হওয়ায়, বিক্রেতা গছিয়ে দেয় স্বাদহীন তরমুজ কিংবা কিছুটা পচে যাওয়া তরমুজ।

এজন্য কেউ কেউ তরমুজ কেনার সময় তা কেটে দেখে নেন। কিন্তু তরমুজ কেটে দেখে কেনাটা অনেকেরই হয়ে ওঠে না। সুতরাং ভালো তরমুজ কীভাবে চিনবেন, তার কিছু উপায় জেনে রাখুন।

* তরমুজ কেনার পূর্বে তাতে টোকা দিয়ে দেখুন। একটু শক্ত ধরনের আওয়াজ পাওয়া গেলে সেই তরমুজ সাধারণত ভালো হবার কথা।

* বেশি সবুজ তরমুজের ভেতরটা একটু সাদাটে হয়, কম সবুজ কিংবা হলদে তরমুজগুলো সাধারণত বেশি পাকা হয়। পাকা তরমুজই বেশি লাল হয়।

* এছাড়া তুলনামূলক ভারী তরমুজ সাধারণত তাজা হয় বেশি, তাই কেনার সময় এই ব্যাপারটিও লক্ষণীয়।

তরমুজ কেনার ক্ষেত্রে অনেকে বেশি লাল তরমুজ আশা করেন, কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন বেশি লাল তরমুজ না কেনা-ই ভালো, কারণ রাসায়নিক দ্রব্য মেশানোর কারণে তরমুজ অতিরিক্ত লাল হতে পারে। অনেক অসাধু ব্যবসায়ী তরমুজে ক্ষতিকর লাল রঙ ও মিষ্টি সেকারিন মিশিয়ে ইনজেকশনের সিরিঞ্জের মাধ্যমে পুশ করে পাকা ও লাল বলে বিক্রি করে থাকে।

আরেকটি ব্যাপার হচ্ছে, তরমুজে ফরমালিন মেশানো থাকতে পারে। ফরমালিন মেশানো হলে তা বাইরে থেকে বোঝার কোনো উপায় নেই। তাই বাজার থেকে তরমুজ কিনে আনার পর চার-পাঁচ ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন, এতে তরমুজের ভেতরের ফরমালিনের ক্রিয়া কমে যাবে।






মন্তব্য চালু নেই